বায়াত হওয়ার দলিল কোরআন হাদীসের আলোকে

By | April 11, 2023
বায়াত হওয়ার দলিল কোরআন হাদীসের আলোকে

আজকে আমরা বায়াত হওয়ার দলিল কোরআন হাদীসের আলোকে জানব। যাতে যেকেউ বুঝতে পারে কেন বাইয়াত বা তরিকা গ্রহণ করতে হয়।

বায়াত কাকে বলে

বায়াত আরবি শব্দ, এটি একটি ইসলামিক পরিভাষা। এর অর্থ আনুগত্যের চুক্তি, আনুগত্যের শপথ ও আনুষ্ঠানিক আনুগত্য ৷ এর মূলধাতুগত অর্থ হলো বিক্রয় করা, লেনদেন করা, শপথ করা, চুক্তি করা ইত্যাদী । তবে, ইসলাম ধর্মে বাইয়াত বলতে শপথ পাঠ বা ইসলামের আনুগত্যের চুক্তিকে বুঝানো হয়।

তরিকা বলতে কি বুঝায়?

তরিকা শব্দটি আরবী তারিক শব্দ হতে পরিগৃহীত হয়েছে, যার বাংলা অর্থ হল পথ, রাস্তা ইত্যাদি। কিন্তু অবশ্যই বুঝতে হবে যে, এই পথ কোন সাধারণ পথ নয় বরং মহান আল্লাহর নৈকট্য হাসিল করার নিমিত্তে যে পথ অতিক্রম করা হয়ে থাকে মূলত সে পথকেই তরিকা বলা হয়ে থাকে। যা বায়াতের মাধ্যমে তরিকত গ্রহণ করতে হয়।

বায়াত হওয়ার দলিল কোরআন শরীফ থেকে

বায়াত বা তরীকা গ্রহণ সর্ম্পকে পাক কোআন শরীফে কি উল্লেখ আছে –

১. নিশ্চয়ই আল্লাহ মুসলমানদের প্রতি সন্তুষ্ট হয়েছিলেন যখন তারা নবী (সাল্লাল্লাহু আলাইহিস সালাম) এর হাতে গাছের নিচে বায়াত গ্রহণ করছিল। ফলত: তিনি তাদের অন্ত: করণে যে সততা ও কৃতজ্ঞতা বিরাজ করছিল তা অবগত হয়েছেন। অত:পর তাদের প্রতি তিনি শান্তি অবতরণ করেছেন এবং তাদেরকে শীঘ্রই বিজয় দানে পুরস্কৃত করেছেন। – সুরা ফাতাহ আয়াত-১৮।

২. হে আমানুগণ। আল্লাহকে ভয় করতে থাক এবং আল্লাহকে চেনার জন্য ওছিলা তালাশ কর। এবং আল্লাহর রাস্তায় জেহাদ কর। এতেই তোমাদের সাফল্য। – সুরা মায়েদা আয়াত-৩৫।

৩. যারা আপনার হাতে হাত দিয়ে বায়াত হয়েছে হে রাসুল(সাল্লাল্লাহুআলাইহিস সালাম) অবশ্যই তারা আল্লাহর হাতে হাত দিয়ে বায়াত গ্রহণ করেছে। তাদের হাতের উপর আপনার হাত। – সুরা ফাতাহ আয়াত-১০।

৪. যে ব্যক্তি রাসুলের আনুগত্য করলো সে আমারই (আল্লাহর) আনুগত্য করলো। – সুরা নেসা আয়াত-৮০।

৫. তোমরা যদি আমাকে ভালবাসিতে চাও তবে আমার নবীকে ভালবাস। নবীকে ভালবাসলেই আমাকে ভালবাসা হবে। -সুরা আল এমরান আয়াত-৩১।

৬. আনুগত্য কর আল্লাহর, আনুগত্য কর রাসুলের এবং তার প্রতিনিধির। -সুরা নিসা আয়াত-৫৯।

৭. যে ব্যক্তি তার ওয়াদা (প্রতিশ্রুতি) পূর্ণ করবে এবং তাকওয়ার নীতি অবলম্বন করবে, সে আল্লাহ পাকের প্রিয়জন হবে। আর নিশ্চিতভাবে আল্লাহ পাক মুত্তাকীদের ভালবাসেন। (সূরা আলে ইমরান ঃ ৭৬)

মহিলাদের বায়াত হওয়ার দলিল

অর্থ : হে নবী(সাল্লাল্লাহু আলাইহিস সালাম) আপনি মহিলাদিগকে বায়াত করুন এবং তাদের নিকট থেকে অংগিকার নিন। -সুরা মোমতাহেনা আয়াত-১২।

বায়াত হওয়ার দলিল হাদীস শরীফ থেকে

* যে তাঁর সময়ের ইমামের হাতে বায়াত না নিয়ে মারা গেল সে জাহিলিয়াতে মৃত্যুবরন করল।
(মুসনাদে আহম্মদ ইবনে হাম্বল ৪র্থ খন্ড)

* হযরত আবদুল্লাহ ইবনে উমর (রা) রাসূলে পাক (সা) হতে বর্ণনা করেছেন, তিনি বলেন,যে ব্যক্তি বাইয়াতের বন্ধন ছাড়াই মারা গেল সে জাহিলিয়াতের মৃত্যুবরণ করল। (মুসলিম)

* আব্দুল্লাহ ইবনে দিনার (রা) হতে বর্ণিত, তিনি হযরত আবদুল্লাহ ইবনে ওমর (রা) কে বলতে শুনেছেন যে,
আমরা রাসূল (সা) এর কাছে বাইয়াত গ্রহণ করতাম, শ্রবণ ও আনুগত্যের উপর এবং তিনি আমাদের সামর্থ্য উক্ত আমল করার অনুমতি দিয়েছেন। (মুসলিম)

শেষ কথাঃ

পীরের মুরিদ হওয়া কি বাধ্যতামূলক? এই প্রশ্ন থাকে তাহলে কোরআন হাদিসের আলোকে অবশ্যই বাধ্যতামূলক কারণ পবিত্র কোরআন মাজীদে বায়াতের গুরুত্ব সম্পর্কে বলা হয়েছে। এবং বায়াত গ্রহণ ও আত্মশুদ্ধির জন্য বায়াত গ্রহন করার জন্য তাগিত দিয়েছেন। হাদিসে শরীফে বাইয়াত বিহীন মৃত্যু জাহেলিয়াতের মৃত্যু বলা হয়েছে। তাই অবশ্যই একজন মানুষকে অবশ্যই বায়াত বা তরিকা গ্রহণ করা অতীব জরুরী বিষয়।

কোরআন থেকে ১৪টি দলিল বায়াত হওয়া জরুরী

আরো পড়ুন-

তথ্য সূত্রেঃ

  • dailyinqilab.com/article/249348/পীরের-কাছে-বাইয়াতের-প্রয়োজনীয়তা-ও-গুরুত্ব
  • kutubbaghdarbar.org.bd /কোরআন-হাদিস-মতে-অবশ্যই-কা/
  • sufibad24.com
  • hasanimamctg.wordpress.com/2016/06/28/পীর-সম্পর্কে-কুরআন-এবং-হা/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *