ই-পাসপোর্টে টাকা জমা দেওয়ার নিয়ম

By | September 14, 2022
ই-পাসপোর্টে টাকা জমা দেওয়ার নিয়ম

আপনাদের সকলকে স্বাগতম জানাই আমাদের আজকের এই আর্টিকেলে। আপনারা যারা এই পাসপোর্টে টাকা জমা দেওয়ার বিষয়ে খুব চিন্তিত রয়েছেন কিভাবে ই পাসপোর্ট এর টাকা জমা দিবেন সে সম্পর্কে জানেন না তাদের জন্য আমাদের আজকের এই আর্টিকেল বিশেষভাবে গুরুত্বপূর্ণ।

 আমাদের আজকের এই আর্টিকেলে আমরা আলোচনা করব ই পাসপোর্ট এর টাকা জমা দেওয়ার নিয়ম সম্পর্কে।। আপনারা আরো জানতে পারবেন ই পাসপোর্ট এর টাকা জমা দেওয়ার জন্য যে সব কাগজপত্রের প্রয়োজন হয় সে কাগজপত্র সম্পর্কে। 

এছাড়াও এ সম্পর্কে আমরা সকল রকমের তথ্যগুলো আপনাদের সাথে আলোচনা করার চেষ্টা করব। আপনারা যারা জানতে চান তারা আমাদের সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন।

পাসপোর্টে টাকা জমা দেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস

আপনার যদি পাসপোর্টে টাকা জমা দিতে চান তাহলে আপনাদের কিছু প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস এর প্রয়োজন পড়ে। এর জন্য আপনাদেরকে আবেদনপত্রের একটি প্রিন্ট কপি করে নিয়ে যেতে হবে। এরপর প্রয়োজন পড়বে অ্যাপয়েন্টমেন্ট সিডিউলের প্রিন্ট কপি। 

পেমেন্ট করার পর আপনাকে একটি স্লিপ প্রদান করা হয়ে থাকে সেই পেমেন্ট স্লিপ এর কপি প্রয়োজন পড়বে। মূল জাতীয় পরিচয় পত্র এবং জন্ম নিবন্ধন সনদ অথবা তার ফটোকপির প্রয়োজন পড়বে।

আপনার বয়স যদি  ২০ বছর হয়ে থাকে তাহলে জাতীয় পরিচয় পত্র আপনার জন্য বাধ্যতামূলক হবে। পূর্ববর্তী পাসওয়ার্ড এবং পাসপোর্ট এর ডাটা পেইজ এর ফটোকপি যদি থাকে তাহলে সেই ফটোকপির প্রয়োজন পড়বে কিন্তু যদি না থাকে তাহলে এর প্রয়োজন নাই।

শুধুমাত্র বর্তমান ঠিকানা পরিবর্তন করা যাবে এক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় কাগজ আনতে হবে তবে অন্য কোন তথ্য ও পরিবর্তন করা যাবে না।

অনলাইনে পাসপোর্টে টাকা জমা দেওয়ার নিয়ম

অনলাইনের মাধ্যমে আপনি যদি ই পাসপোর্ট এর টাকা জমা দিতে চান তাহলে আপনাকে প্রথমে যা করতে হবে তা হল a challan ওয়েবসাইটে গিয়ে ই পাসপোর্ট ফি সিলেক্ট করতে হবে। এরপর পাসপোর্টের পৃষ্ঠা সংখ্যা, মেয়াদ ও ডেলিভারির ধরন বাছাই করতে হবে।

 তারপর ব্যক্তির পরিচিতি নম্বর নাম ঠিকানা ও মোবাইল নাম্বার লিখতে হবে সঠিকভাবে। লেখার পর সবশেষে সুবিধা মত ব্যাংক বাছাই করে পেমেন্ট করুন এবং চালানের প্রিন্ট কপি সংগ্রহ করুন।

নাম লেখার ক্ষেত্রে অবশ্যই পাসপোর্ট আবেদনের সাথে মিল রেখে নাম এন্ট্রি করতে হবে। এ সালামে ও পাসপোর্ট আবেদনে নামের বানানে পার্থক্য থাকলে চালান গৃহীত হয় না। তাই খুব সাবধানে নাম লিখতে হবে।

এছাড়াও বিশেষভাবে খেয়াল রাখতে হবে যে যদি জাতীয় পরিচয় পত্র দ্বারা পাসপোর্ট এর আবেদন করা হয় অবশ্যই জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর দিবেন। আর যাদের বয়স ২০ বছরের কম জাতীয় পরিচয় পত্র নেই তারা জন্ম নিবন্ধন নম্বর দিবেন।

অবশ্যই সংখ্যাগুলো শুদ্ধভাবে লিখবেন। এখানে ব্যাংক বাছাই করুন আপনার সুবিধা মত আপনি অন্য ব্যাংক ও বাছাই করতে পারবেন। এরপর বিকাশ নগদ অথবা রকেটের মাধ্যমে টাকা জমা দিতে পারবেন সোনালী ব্যাংকের মাধ্যমে। এর জন্য আপনাকে সোনালী ব্যাংক সিলেক্ট করতে হবে। সোনালী ব্যাংকের অনলাইন একাউন্ট ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ড থেকেও পেমেন্ট করতে পারবেন।

এপাশে বাটনে ক্লিক করে আপনাকে সোনালী ব্যাংকের পেমেন্ট গেটওয়াই তে নেওয়া হবে।

মোবাইলের মাধ্যমে পাসপোর্টে টাকা জমা দেওয়ার নিয়ম

আপনি চাইলে আপনার মোবাইল থেকেও ই পাসপোর্ট এর টাকা জমা দিতে পারেন। এজন্য সবচেয়ে ভালো হয় আপনার মোবাইলে বাংলাদেশ অর্থ মন্ত্রণালয়ের a challan অ্যাপ ইন্সটল করে নেওয়া। এছাড়াও Google chrome থেকেও এ সালাম পরিশোধ করতে পারবেন।

চালানে পাসপোর্ট ফি এডজাস্টমেন্ট করার নিয়ম

৪৮ পৃষ্ঠার ই পাসপোর্ট ফি জমা দিয়েছেন কিন্তু এখন ৬৪ পৃষ্ঠার ই পাসপোর্ট ফি জমা দিতে হবে। অথবা সাধারণ ডেলিভারির ফি জমা দিয়েছেন কিন্তু জরুরী আবেদন করার ফি জমা দেয়া প্রয়োজন। এরকম অবস্থায় বাড়তি ফি কিভাবে জমা দিবেন সে সম্পর্কে জেনে নেওয়া দরকার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *