ভয়েস চেঞ্জ করার সফটওয়্যার ২০২২

ভয়েস চেঞ্জ করার সফটওয়্যার ২০২২

ইন্টারনেটের এই যুগে এই মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহারের ফলে আমরা এখন অনেক অসাধ্য কাজকে সাধ্যের মধ্যে নিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছে। অনেক সময় আমরা আমাদের বন্ধুদের সাথে মজা করতে কল করার জন্য আমরা আমাদের কন্ঠ পরিবর্তন করতে চাই। অনেক মোবাইল ফোন রয়েছে যেগুলোতে ফিচার হিসেবে ভয়েস চেঞ্জার ব্যবহার করা যায় কিন্তু বেশীরভাগ মোবাইল গুলোতে এই ফিচারটি ব্যবহার করা হয় না।

আপনার মোবাইল ফোনে যদি ভয়েস চেঞ্জার এর এ ফিচারটি না থেকে থাকে তাহলে দুশ্চিন্তার কোনো কারণ নেই কেননা আজকে আমরা আপনাদের সাথে বেশ কিছু অ্যাপ বা সফটওয়্যার এর সাথে আলোচনা করে দিব যেগুলো যদি আপনি ডাউনলোড করেন তাহলে আপনি আপনার কন্ঠ কল করার সময় পরিবর্তন করতে পারবেন।

আজকে আমরা আপনাদের সাথে আলোচনা করতে চলেছি সেরা 8 টি ভয়েস চেঞ্জার সফটওয়্যার যেগুলো আপনি গুগল প্লে স্টোরে পাবেন এবং ডাউনলোড করার পর তা ব্যবহার করে যেকোনো ভয়েজে তা পরিবর্তন করতে পারবেন। সুতরাং আপনারা আমাদের আর্টিকেলটি পড়ার মাধ্যমে ভয়েস চেঞ্জ করার সফটওয়্যার ডাউনলোড করতে পারবেন এবং এই সফটওয়্যার কিভাবে কাজ করে তার সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

ভয়েস চেঞ্জ করার সফটওয়্যার

আমাদের প্রাত্যহিক জীবনে আমাদের বন্ধু-বান্ধব আত্মীয়-স্বজনদের সাথে যোগাযোগ স্থাপনের জন্য আমরা বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের পাশাপাশি ভয়েস কল করতে পছন্দ করি। যার কারণে বিভিন্ন ধরনের অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করা হয় এবং আমাদের নিজের যে কন্ঠ রয়েছে তা দিয়ে তাদের সাথে কথা বলে থাকি।

তবে অনেক ক্ষেত্রে আমরা আমাদের ভয়েস কি চেঞ্জ করে আমরা তাদের সাথে কথা বলতে চাই তাদের সাথে মজা করতে পারি। এ অবস্থায় আপনার মোবাইলটিতে ভয়েস চেঞ্জার সফটওয়্যার নাও থাকতে পারে। তবে আপনি যদি স্মার্ট ফোন ব্যবহার করে থাকেন তাহলে আপনার ভয়েস চেঞ্জার ফিচারটি মোবাইলে না থাকলেও চলবে। আমরা এখানে বেশ কয়েকটি ভয়েস চেঞ্জ করার সফটওয়্যার সম্পর্কে আলোচনা করেছি যেগুলো আপনি ব্যবহার করতে পারেন।

Voice Changer (বিনামূল্য): 

বেস্ট ভয়েস চেঞ্জার নামের অ্যাপটি বিভিন্ন ধরণের ফাইল ফরম্যাট, যেমন- WAV, MP3 ও অন্যান্য ফরম্যাটেও কাজ করে থাকে।  ইহা এমন একটি সফটওয়্যার যা ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি এক ক্লিকেই বেশ কয়েকটি ভয়েস চেঞ্জ করতে পারবেন। অন্যদিকে ভয়েস কলের পাশাপাশি আপনি চাইলে যেকোন রেকর্ডিং করা অডিও ভয়েস চেঞ্জার মোড সিলেক্ট করে তা বিভিন্ন ইফেক্ট ব্যবহার করে পরিবর্তন করা যাবে।

আপনি গুগল প্লে স্টোরে প্রবেশ করে ভয়েস চেঞ্জার লিখে সার্চ করুন। অফিশিয়াল অ্যাপ্লিকেশন টি আপনার সামনে প্রদর্শিত হবে এবং তা ইন্সটল করে নিন। অ্যাপটি ইন্সটল করার পর আপনাকে সেখানে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে এবং রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন হওয়ার পরেই আপনি এই অ্যাপ এর ফিচারগুলো ব্যবহার করতে পারবেন।

বৈশিষ্ট্য

  • এখানে প্রচুর ইফেক্ট এর সুব্যবস্থা রয়েছে।
  • ভয়েস রেকর্ড করতে পারেন বা ভলিউম পাল্টাতে এক্সিস্টিং অডিও ফাইল নির্বাচন করতে পারেন।
  • বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক হোয়াটসঅ্যাপ ইমুতে ভয়েস চেঞ্জ করতে পারবেন।

Audio4Fun:

নিজের ভয়েস পরিবর্তন করে সাধারণত আমাদের বন্ধুবান্ধব আত্মীয় স্বজনের সাথে কথা বলার সময় তাদেরকে মজা দিতে। ঠিক এই কারণেই গুগল প্লে স্টোরে নতুন একটি ভয়েস চেঞ্জার সফটওয়্যার আপডেট করা হয়েছে। অডিও ফর ফান নামের এই সফটওয়্যারটির বর্তমানে আপনি গুগল প্লে স্টোরে পাবেন এবং ইন্সটল করার পর তার ফিচারগুলো ব্যবহার করতে পারবেন।

বৈশিষ্ট্য

এই সফটওয়্যারে আপনি প্রাণবন্ত অডিও ব্যাকগ্রাউন্ড ইফেক্ট এর বিশাল সমাহার পাচ্ছেন।

এর স্মার্ট ও ব্যবহারকারীরা ইন্টারফেস আপনাকে খুব সহজেই ভয়েস পরিবর্তন করতে সাহায্য করবে।

আপনি আপনার ফোনের ভয়েস কল ছাড়াও অনলাইনে যে সকল ভয়েস কলিং এর সফটওয়্যার রয়েছে সেগুলো তেও ব্যবহার করতে পারবেন ভয়েস চেঞ্জার।

অত্যাধুনিক ভয়েস মর্ফিং টেকনোলজির মাধ্যমে আপনি সবসময় ন্যাচারাল ভয়েস তৈরি করতে পারবেন।

এই গলার স্বর পরিবর্তনকারী সফ্টওয়্যারটি ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং, অনলাইন ভিডিও গেম ও VoIP প্রোগ্রামগুলোর জন্যে সেরা কাজ করে।

সাপোর্টেড প্ল্যাটফর্ম: উইন্ডোজ ভিস্তা, 7, 8, 10 (32-বিট ও 64-বিট)

Voicemod:

ইন্টারনেটে বিনামূল্যে ভয়েস চেঞ্জ করার অনেক সফটওয়্যার রয়েছে তাদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ ও কার্যকরী সফটওয়্যার হচ্ছে VoiceMod। যার কারণে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা বর্তমানে এই সফটওয়্যারটি ব্যবহার করতে আগ্রহী। এই ভয়েস চেঞ্জার অ্যাপটি আপনার কম্পিউটারের পাশাপাশি অনলাইন গেমের জন্যেও ব্যাপকভাবে ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

বৈশিষ্ট্য

  •  এ সফটওয়্যারটি ব্যবহার করার ফলে আপনি WAV ও MP3 ফাইল ফরম্যাটও সাপোর্ট করে।
  • এই অ্যাপ্লিকেশনের ভয়েজ নির্বাচন করতে প্রধান প্যানেলটি ব্যবহার করা সকলের জন্য সহজ হয়।
  • সাধারণ SDK-এর সাহায্যে রিয়েল-টাইমে ভয়েস পাল্টানো সম্ভব।
  • আপনি যদি কম্পিউটার ব্যবহারকারী হয়ে থাকেন তাহলে এ ভয়েস চেঞ্জার সফটওয়্যার দিয়ে বিভিন্ন ইফেক্ট ব্যবহার করতে পারবেন।
  • ফ্রি ফায়ারের মতো অনলাইন গেমের পাশাপাশি এই ভয়েস চেঞ্জার অ্যাপটি Viber, Hangouts, Paltalk এবং আরও অনেক অসংখ্য চ্যাট সার্ভিসিং সফ্টওয়্যারের সাথেও ভালোভাবে কাজ করে।

NCH – Voxal Voice Changer:

NCH Voxal Voice Changer হল একটি ব্যবহারকারী-বান্ধব ভয়েস চেঞ্জার সফ্টওয়্যার। এই অ্যাপ্লিকেশনটি ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি ভয়েস কল এর পাশাপাশি বিভিন্ন স্ট্রিমিং কল ফেসবুক হোয়াটসঅ্যাপ ইনস্টাগ্রম এবং মেসেজিংয়ে ভয়েস চেঞ্জ করতে পারবেন। এক কথায় বলতে গেলে এই সফটওয়্যার দিয়ে আপনার ভয়েস চেঞ্জ করার ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। গুগল প্লে স্টোরে অ্যাভেলেবল এই সফটওয়্যারটি আপনি খুব সহজে ব্যবহার করতে পারবেন এবং ডাউনলোড করার বিশেষ সুবিধা রয়েছে।

বৈশিষ্ট্য

  • এ সফটওয়্যারটির মাধ্যমে অডিওবুক বাড়ানো সম্ভব।
  • এ্যাক্টিভ রিয়েল-টাইমে ভয়েস চেঞ্জ করতে সক্ষম।
  • দ্রুত ভয়েস পরিবর্তন নিয়ন্ত্রণ করতে এখানে হটকিও সেট করতে পারেন।
  • এখানে আপনি খুব মজাদার ভাবে আপনার ভয়েস পরিবর্তন করতে পারবেন।
  • আপনি অরজিনাল ভয়েজ এর পাশাপাশি ইফেক্ট ব্যবহার করার পর যে ভয়েজ হবে তা রেকর্ড করে রাখতে পারবেন।

এই ছিল ভয়েস চেঞ্জ করার সফটওয়্যার সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা। এ সকল সফটওয়্যার এর বাইরে আরও অনেক মজাদার সফটওয়্যার থাকতে পারে যেগুলো আপনি চাইলে ব্যবহার করতে পারেন। তবে আপনাদের উদ্দেশ্যে আমরা বলতে চাই যে আমরা যে সকল সফটওয়্যার সম্পর্কে এখানে আলোচনা করেছি সেগুলো আপনার ভয়েস চেঞ্জ করতে বিশেষ ভূমিকা পালন করবে।