Pensioner Verification App। ঘরে বসে লাইফ ভেরিফিকেশন করুন সহজে

Pensioner Verification App। ঘরে বসে লাইফ ভেরিফিকেশন করুন সহজে

পেনশনারদের পেনশন পাওয়ার যে ভোগান্তি তা কমানোর জন্য গত বছরের সকল পেনশনারদের ইএফটির আওতায় অনলাইন ভিত্তিক সকল কার্যক্রমে আনায়ন করা হয়েছে। যার কারণে এখন আর আপনাকে পেনশন তুলতে হিসাবরক্ষণ অফিসে যেতে হবে না। প্রতিমাসেই আপনার পেনশন চলে আসবে আপনার ব্যাংক একাউন্টে।

প্রতিবছরের এগারতম মাস অর্থাৎ নভেম্বরে পেনশনারদের লাইফ ভেরিফিকেশন করতে হয়। পেনশনার যে বেঁচে রয়েছে তা দেশের যে কোনো হিসাবরক্ষণ অফিসের মাধ্যমে লাইফ ভেরিফিকেশন প্রসেস সম্পন্ন করে উপস্থিত থেকে তাদের তথ্য উপস্থাপন করা হয়। বর্তমানে তথ্য প্রযুক্তির উন্নতির কারণ এ ঘরে বসে থেকে আপনি লাইফ ভেরিফিকেশন করতে পারবেন যার কারণে এখন আপনাকে হিসাবরক্ষণ অফিসের সশরীরে উপস্থিত হওয়ার তেমন প্রয়োজন নেই।

অনলাইনে লাইফ ভেরিফিকেশন

আপনারা যদি বর্তমানে বাংলাদেশের প্রতিটি সরকারই সেক্টরগুলোর দিকে লক্ষ্য রাখেন তাহলে দেখবেন প্রতিটি ক্ষেত্রে ইন্টারনেটের ছোঁয়া লেগেছে। তবে বয়স্ক এবং যারা পেনশন লাইফ ভেরিফিকেশন করতে আগ্রহী তাদের সরিলে হিসাবরক্ষণ অফিসে যোগাযোগ করা সত্যিই অসম্ভব ব্যাপার। যার কারণে বাংলাদেশ সরকার চালু করল অনলাইন ভেরিফিকেশন অ্যাপ ব্যবহার করার ফলে পেনশন ঘরে বসেই ভেরিফিকেশন কার্যক্রম সম্পন্ন করতে পারবেন।

সুতরাং আপনার যদি একটি স্মার্টফোন থেকে থাকে তাহলে আপনি এই অ্যাপ্লিকেশনটি গুগল প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করতে পারবেন এবং আপনার লাইফ ভেরিফিকেশন সম্পন্ন করা লাগবে। জাতীয় পরিচয় পত্র যেটাই হোক না কেন আপনাকে 10 ডিজিটের স্মার্ট ফোন নাম্বার এবং ইপিপিও নাম্বার ব্যাবহার করে অ্যাপ লগইন করতে হবে।

অ্যাপেল লগিন করার পর আপনাকে লাইফ ভেরিফিকেশনের জন্য ক্লিক করে ছবি তুলতে হবে। পরপর দুইবার দুটি ছবি তোলার পরে আপনাকে অটোমেটিক ভেরিফিকেশন সফল হয়েছে বলে মেসেজ দেখানো হবে। সবশেষে ভেরিফিকেশন মাস আপনার সামনে প্রদর্শিত হবে।

অনলাইনে পেনশনার ভেরিফিকেশন করার পদ্ধতি ২০২২

আপনারা যারা অনলাইনে পেনশনার ভেরিফিকেশন করতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন তারা ইতিমধ্যে বুঝতে পেরেছেন যে আপনাদের প্রথমে একটি অফিশিয়াল অ্যাপ্লিকেশন ইনস্টল করতে হবে যা গুগোল প্লেস্টরে বর্তমানে রয়েছে। এ অ্যাপটি ইন্সটল করার জন্য আপনাকে অবশ্যই একটি স্মার্টফোন থাকা জরুরি।

  • অফিশিয়াল এপ্লিকেশনটি ইন্সটল করে তা চালু করুন।
  • মোবাইলের ক্যামেরা দিয়ে জাতীয় পরিচয় পত্র স্ক্যান করুন অথবা 10 ডিজিটের জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর 12 ডিজিটের নম্বর যথাযথভাবে ইনপুট করুন। আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র মোবাইলের ক্যামেরায় ছবি তুলে বা জাতীয় পরিচয় পত্র লিখে পরবর্তী ধাপে প্রবেশ করুন।
  • পরবর্তী ধাপে আপনাকে 10 ডিজিটের হোমপেজে চলে আসবে যেখানে আপনার ছবি আপনার প্রোফাইল প্রদর্শিত হবে।
  • হোমপেজে আসার পর 4 নম্বর ক্যাটাগরিতে আপনি লাইফ অন অপশন এ ক্লিক করুন।
  • ছবিতে ক্লিক করুন এই অপশনে প্রবেশ করার সাথে সাথে আপনার ছবি তোলার নির্দেশনা চলে আসবে।
  • ওইখানে ক্লিক করা মাত্রই আপনার ক্যামেরা সক্রিয়ভাবে চালু হবে এবং ক্যামেরা চেহারা রেখে প্রথম ছবি তুলুন।
  • পুনরায় ছবিতে ক্লিক করুন প্রেস করা মাত্রই আপনার দ্বিতীয় ছবিটি সম্পূর্ণ হবে।
  • ভেরিফিকেশন তথ্য ক্লিক করলে ভেরিফিকেশন সম্পন্ন হয়েছে কিনা তা যাচাই করা যাবে।
  • পরিশেষে আপনার ভেরিফিকেশন এর কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে।

অ্যাপ যদি ফেস কি একবার চেহারা চিনতে না পারে তাহলে কি করবেন?

যদি আপনি দুইটি ছবি তুলেছেন তার পরেও অফ আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্ট বা না করতে পারে তবে আপনাকে হিসাবরক্ষণ অফিসে সরাসরি যোগাযোগ করতে হবে। আপনি যদি পরপর দুইবার ব্যর্থ হন তাহলে লাইফ ভেরিফিকেশন ব্যর্থ হয়েছে এমন একটি নোটিফিকেশন আসবে আপনার অ্যাপের মাধ্যমে। সুতরাং আপনার যদি চেহারা চিনতে সমস্যা করে তাহলে আপনি অবশ্যই সশরীরে উপস্থিত হবেন।

আপনাদের জন্য বিশেষ নির্দেশনা এজে লাইফ ভেরিফিকেশন অ্যাপ এ ছবি তোলার সময় কোন ধরনের সানগ্লাস চশমা ব্যবহার করবেন না। ছবি তোলার সময় আপনার ফেসটা অবশ্যই পরিষ্কার রাখবেন এবং কোন ধরনের বাধাপ্রাপ্ত যেন না হয় সেদিকে খেয়াল রাখবেন।