সরকারি ভাবে ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ 2022

দেশে ও বিদেশে শিক্ষিত ও দক্ষ পেশাদার ড্রাইভার দের চাহিদা পূরণের লক্ষ্যে জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন দেশে বিদেশে কর্মসংস্থানের জন্য ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ কেন্দ্র শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় সম্পূর্ণ বিনা খরচে ড্রাইভিং সেখানে পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে বাংলাদেশ সরকার।

বাংলাদেশ সরকারের গুরুত্বপূর্ণ একটি পদক্ষেপ যার কারণে লক্ষ্য বেকার নতুন একটি কোর্স বিনামূল্যে শিখতে পারবে। ড্রাইভিং উইথ অটোমেকানিক্স” NTVQF Level এ পরিচালিত ৩৬০ ঘন্টা মেয়াদী কোর্সে ভর্তি চলছে এবং প্রকল্পের নিয়মানুযায়ী সকল প্রকার সুবিধাদি প্রদান করা হবে।

সুতরাং আপনারা যারা সরকারিভাবে ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ গ্রহণ করতে চান তারা আমাদের পুরো আর্টিকেলটি পড়ল এবং যে সকল তথ্য দরকার তা সংগ্রহ করুন। আমরা আপনাদের জন্য বিআইএমটি আইএমটি ও কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র টিটিসি দেওয়া সকল নির্দেশনা অনুসরণ করে এখানে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করার সকল তথ্য উপস্থাপন করলাম।

ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ 2022

বাংলাদেশ একটি ছোট দেশ হওয়ার কারণে এখানে অনেকেই রয়েছেন যারা গ্র্যাজুয়েশন শেষ করার পরেও বেকার হয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক বেকারত্ব দূর করার জন্য স্থানীয়ভাবে দেশের প্রতিটি জেলা-উপজেলা পর্যায়ে বিভিন্ন ধরনের প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে।

628dece00f3c4835439405

এতে করে বেকার নতুন আত্মকর্মসংস্থান তৈরি করার পাশাপাশি দেশের উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। আপনারা যারা সরকারিভাবে ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ গ্রহণ করতে চান তারা সম্প্রতি জেনে থাকবেন যে কর্তৃপক্ষ কর্তৃক একটি নতুন বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে যেখানে বেশকিছু শর্ত দেওয়া হয়েছে যে শর্তগুলো মানার পর আপনি এ প্রশিক্ষণ গ্রহণ করতে পারবেন।

ফ্রি ড্রাইভিং কোর্সে ভর্তির শর্ত সমূহ

  • বিদেশগামী পাসপোর্টধারীদের এই কোর্সে প্রশিক্ষণ দেওয়ার জন্য অগ্রাধিকার দেওয়া হবে কেননা এতে করে তারা দেশে শেখার মাধ্যমে বিদেশে প্রবাসী হিসেবে কাজ করতে পারবে।
  • আবেদনকারীকে অবশ্যই জাতীয় পরিচয় পত্র থাকতে হবে।
  • শিক্ষাগত যোগ্যতা হিসেবে ন্যূনতম জেএসসি বা অষ্টম শ্রেণী পাস হতে হবে।
  • আপনি যদি পূর্বেই লাইসেন্সধারী হয়ে থাকেন তাহলে আপনার আবেদন করার কোন প্রয়োজন নেই।
  • রাষ্ট্র বা সমাজ বিরোধী কোন কাজের জন্য যুক্ত থাকলে তাদের আবেদন গ্রহণযোগ্য হবে না।
  • বাধ্যতামূলক ড্রপ টেস্ট করতে হবে।
  • টিটিসির স্কিল অগ্রাধিকার দেওয়া হবে।
  • ভর্তির ক্ষেত্রে বয়স 21 থেকে 45 বছরের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকতে হবে।
  • মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের আবেদনের জন্য অগ্রাধিকার দেওয়া হবে।
  • শুধুমাত্র স্বল্পশিক্ষিত এতিম ও সুবিধাবঞ্চিত অনগ্রসর যুবক পুরুষ ও মহিলাদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে।
  • অন্য কোনো প্রতিষ্ঠান অধ্যায়নরত প্রশিক্ষণরত অবস্থান রয়েছে এমন ছাত্র-ছাত্রীদের আওতাভুক্ত করা হবে না।
  • প্রশিক্ষণ শেষে বিআরটিএ কতৃক চূড়ান্ত টেস্টে নির্বাচিতদের সরকারি খরচে লাইসেন্স প্রদান করা হবে।

ফ্রি ড্রাইভিং কোর্সে আবেদন করার নিয়ম

আপনারা যারা উপরের শর্তগুলো পড়েছেন তারা হয়তো বুঝতে পেরেছেন যে বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক কোন ধরনের ব্যক্তিদের বিনামূল্যে ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। সুতরাং আপনার যদি এসকল যোগ্যতা থেকে থাকে তাহলে আপনি আবেদনের জন্য উপযুক্ত। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক কিভাবে ফ্রি ড্রাইভিং করছে আবেদন করতে হয় তা সম্পর্কে জানি।

  • আবেদন করতে যে সকল কাগজপত্র লাগবে তা আমরা আলোচনা করলাম।
  • শিক্ষাগত যোগ্যতার সত্যায়িত অনুলিপি।
  • জাতীয় পরিচয় পত্রের সত্যায়িত এক কপি।
  • পাসপোর্ট সাইজের তিন কপি সম্প্রতি তোলা ছবি।
  • নাগরিকত্ব সনদপত্র এক কপি।
  • পাসপোর্ট এর ফটোকপি।

এসকল তথ্য গুলো এবং ডকুমেন্টগুলো সঙ্গে নিয়ে আপনার নিকটস্থ অফিসে সরাসরি যোগাযোগ করতে হবে এবং অফিশিয়াল আপনাকে একটি আবেদন ফরম দেওয়া হবে তা পূরণ করতে হবে। আবেদন ফরম পূরণ করার পর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক আপনাকে যাচাই করা হবে এবং আপনি যদি প্রশিক্ষণের যোগ্য হয়ে থাকেন তাহলে পরবর্তী ধাপে আপনাকে ডাকা হবে।

আমরা আশা করছি যে আপনি সকল তথ্য জানতে পেরে এবং যে সকল ডকুমেন্ট আবেদন করার জন্য লাগবে তার সম্পর্কে বুঝতে পেরেছেন। সুতরাং সময় নষ্ট না করে ফ্রী ড্রাইভিং পদে আবেদন করুন এবং একজন প্রশিক্ষিত ড্রাইভার হয়ে নিজের বেকারত্ব দূর করুন।