নাম্বার ছাড়া ইমু খোলার নিয়ম ২০২২

বর্তমানে যে সকল ভিডিও অডিও মেসেজিংয়ের অ্যাপ্লিকেশন রয়েছে তাদের মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় ও উপযোগী ইমো। বিশেষ করে আপনার পরিবার-পরিজন আত্মীয়-স্বজন এর মাঝে কেউ যদি দেশের বাইরে অবস্থান করে থাকে এক্ষেত্রে তার একটি ইমো একাউন্ট থাকা অত্যন্ত জরুরী। কেননা এই অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে আপনি দুর্বল নেটওয়ার্ক এর মধ্যেই ভালোভাবেই তাদের সাথে অডিও ভিডিও কলিং করতে পারবেন।

আপনারা যারা ব্যবহারকারী রয়েছেন তারা অবগত আছেন যে সাধারণত একটি ইমো একাউন্ট খুলতে হলে মোবাইল নাম্বার জরুরী। মোবাইল নাম্বার ছাড়া কোনভাবেই ইমো একাউন্ট খোলার সম্ভব নয় কেননা আপনার ইমো একাউন্ট সাধারণত মোবাইল নম্বর ভিত্তিতে পরিচয় বহন করে। ফেসবুক বা অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আপনি একটি ইমেইল আইডি ব্যবহার করে আপনার প্রোফাইল তৈরী করতে পারবেন।

যেহেতু নাম্বার ব্যবহার করে ইমো অ্যাকাউন্ট খুলতে হয় যার কারণে অনেকেই রয়েছেন যে বিভিন্ন জটিলতার কারণে ইমু একাউন্ট খুলেছেন কিন্তু তাদের নিজস্ব কোন নাম্বার নেই। ঐ সকল ব্যক্তিদের সাহায্য করার উদ্দেশ্যে আমরা আজকে আপনাদের দেখাব কিভাবে আপনার নাম্বার ছাড়া কিভাবে ইমো একাউন্ট তৈরি করা যায়। সুতরাং আপনি অবশ্যই আমাদের পুরো আর্টিকেলটি করবেন এবং আমাদের দেওয়া গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সংগ্রহ করে তা যথাযথভাবে করার চেষ্টা করবেন।

নাম্বার ছাড়া ইমু একাউন্ট খোলার নিয়ম

আপনাদের জন্য আমরা একটি বিশেষ নোটিশ প্রকাশ করতে চলেছে যে নাম্বার ছাড়া ইমো একাউন্ট খোলা এককথায় অসম্ভব। ইমো অ্যাপ্লিকেশন কর্তৃপক্ষ এখন পর্যন্ত এমন কোনো পিজা তৈরি করেননি যার মাধ্যমে আপনি মোবাইল নাম্বার ছাড়াই একাউন্ট চালু করবেন। ইহা সম্পূর্ণ তাদের নির্দেশনার বাইরে যার কারণে তারা এই ফিচারটি এখন পর্যন্ত চালু করেন নি।

আপনার মোবাইল নাম্বার আপনার ইমো একাউন্ট এর পরিচয় বহন করে অর্থাৎ আপনার দূরে কাছে দেশ দেশের বাইরে যে সকল বন্ধুবান্ধব আত্মীয়স্বজন রয়েছে তারা আপনার মোবাইল নাম্বারটি যদি কন্টাক লিস্টে সেভ করে রাখে তাহলে আপনি তাদের সাথে যুক্ত হতে পারবেন এবং কথা বলতে পারবেন। এর ফলে আপনি বুঝতে পেরেছেন যে নাম্বার কতটা জরুরি একটি ইমেইল একাউন্ট খোলার জন্য। তবে নিরাশ হওয়ার কোনো কারণ নেই কেননা আমরা নাম্বার ছাড়া ইমো একাউন্ট খোলার নিয়ম বিস্তারিতভাবে আলোচনা করেছি।

ইমো একাউন্ট খোলার নিয়ম

নাম্বার ছাড়া ইমু একাউন্ট খোলা বলতে আমরা বুঝিয়েছি আপনার নিজের যদি পার্সোনাল নাম্বার না থাকে অর্থাৎ আপনি 18 বছর হয়েছে কিন্তু এখন পর্যন্ত জাতীয় পরিচয় পত্র দিয়ে কোন সিম রেজিস্ট্রেশন করতে পারেননি। এ অবস্থায় আপনি চাইবেন যে আপনার একটি নিজস্ব সিমকার্ড হোক এবং সে একটি ইমো একাউন্ট থাকুক। কিন্তু দুঃখের বিষয় এই যে স্থানীয় সরকার করতে এখন পর্যন্ত আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র বের করা হয়নি যার কারণে আপনি নতুন সিম ক্রয় করতে পারছেন না।

আপনি যদি এমন অবস্থার মধ্যে পড়ে থাকেন তাহলে আপনার জন্য খুশির খবর এলো এই যে আপনি নিজের নাম্বার ছাড়া আপনার পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নাম্বার ব্যবহার করে ইমো অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন। আপনি আপনার বাবা-মা ভাই-বোন আত্মীয়-স্বজন অন্য সকল যেকোনো একটি মোবাইল নাম্বার ব্যবহার করবেন তাহলে সে নম্বরটি আপনার ইমো একাউন্ট হিসেবে পরিচিতি লাভ করবে।

ভেরিফিকেশন কোড ছাড়া ইমু একাউন্ট

আমরা ইতিমধ্যে আপনাদের জানিয়েছি যে একটি ইমো একাউন্ট খোলার জন্য অবশ্য একটি মোবাইল নাম্বার জরুরী। আপনি যদি ইমো একাউন্ট না থেকে থাকে তাহলে এখনি আপনি ইমো একাউন্ট চালু করতে পারেন একটি মোবাইল নাম্বার দে। প্রথমে আপনাকে ইমুর অফিশিয়াল অ্যাপ্লিকেশন গুগল প্লে স্টোর থেকে ইন্সটল করতে হবে। অ্যাপ্লিকেশন টি চালু করুন এবং নির্ধারিত স্থানে সাইনআপ অথবা লগইন অপশন এ ক্লিক করুন। যে নাম্বার দিয়ে আপনি ইমো একাউন্ট খুলতে চান সে নাম্বারটি লিখুন।

ইমোর ব্লক খোলার নিয়ম

মোবাইল নাম্বার আপনার পার্সোনাল মোবাইল নাম্বার একটি ভেরিফিকেশন কোড পাঠানো হবে। উক্ত স্থানে যৌথভাবে বসাতে পারেন তাহলে আপনার ইমু একাউন্ট এক্টিভেট হবে। তবে অনেকে রয়েছে ভেরিফিকেশন কোড ছাড়া ইমু একাউন্ট খুলতে আগ্রহী তাদের উদ্দেশ্যে বলতে চাই যে আপনি অন্যের ভেরিফিকেশন কোড কিভাবে নিজের বলে চালাতে পারবেন না কেননা যতবার আপনি ভেরিফিকেশন এর জন্য রিসেন্ট বাটন এ ক্লিক করবেন ততই আপনি নতুন নতুন ভেরিফিকেশন কোড পাবেন। সুতরাং ভেরিফিকেশন কোড ছাড়া কিভাবে ইমো একাউন্ট চালু করা সম্ভব নয়।

ওপরের অংশের আলোচনার ভিত্তিতে আপনি ইতিমধ্যেই সম্পর্কে অনেক তথ্যই পেয়েছেন। ইমো সহ অন্যান্য যে কোন তথ্যের জন্য আমাদের ওয়েবসাইটের আর্টিকেলগুলো পড়তে পারেন কেননা আমরা এখানে নিয়মিত বিভিন্ন ধরনের আর্টিকেল প্রকাশ করি। আমাদের পাশে থাকার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।