ঘরে বসে মোবাইলে আয় করার উপায় ২০২২

তথ্য প্রযুক্তির উন্নতির ছোঁয়ায় ও স্মার্টফোনের সহজলভ্যতার কারণে বর্তমানে টাকা ইনকাম করা অনেকটা সহজ হয়ে দাঁড়িয়েছে। প্রতিযোগিতার বাজারে দেশি-বিদেশি মোবাইল কোম্পানিগুলো একে অন্যের সাথে নিজেদের অবস্থান টিকিয়ে রাখার জন্য স্বল্প দামে স্মার্টফোন প্রকাশ করছে। যার কারণে আপনি এখন মাত্র 5000 টাকা দিয়েই ভালো ফিচার সমৃদ্ধ একটি স্মার্টফোন পেতে পারেন।

স্মার্টফোন ব্যবহারকারীর দিক দিয়ে বাংলাদেশের 40 শতাংশ মানুষ বর্তমানে স্মার্টফোন ব্যবহার করছে। সাধারণত আমরা গেম খেলা অথবা টিকটক ও অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম গুলো ব্যবহার করার ক্ষেত্রে এই স্মার্টফোনগুলো ক্রয় করে থাকে। কেমন হয় যদি আপনার এই স্মার্টফোন ব্যবহার করে প্রতি মাসে হাজার হাজার টাকা ইনকাম করা যায়।

ডিজিটাল বাংলাদেশে অনেক কিছু এখন ঘরে বসে থেকে করা সম্ভব। স্মার্টফোন এমন একটা জিনিস যার মাধ্যমে আমরা সারা বিশ্বকে হাতের মুঠোয় পেতে পারি। আপনারা যারা অবসর সময় কাটাচ্ছেন ঘরে বসে থেকে কিছু না করে তাদের উদ্দেশ্যে আমাদের আজকের এই আর্টিকেলটি লেখা হয়েছে। আমরা এখানে আপনাদের দেখাতে চলেছে ঘরে বসে মোবাইলের মাধ্যমে আয় করার 10 টি সেরা উপায়।

আমরা আপনাদের শতভাগ নিশ্চয়তা দিচ্ছি যে আমাদের দেওয়া তথ্যগুলো যদি আপনি অনুসরণ করেন তাহলে অবশ্যই ঘরে বসে মোবাইলে আয় করতে পারবেন। চলুন জেনে নেওয়া যাক সেই গোপন দশটি পদ্ধতি ব্যবহার করে ঘরে বসে থেকে আয় করা সম্ভব।

ঘরে বসে মোবাইলে ইনকাম

এখন আর আপনাকে চাকরি খোঁজার জন্য অথবা কাজ করার জন্য বাইরে যাওয়ার কোনো প্রয়োজন নেই। ইন্টারনেটের এই যুগে বর্তমানে ঘরে বসে থেকে সকল কাজ সম্পাদন করা সম্ভব। আপনার কাছে যদি একটি স্মার্টফোন থেকে থাকে এবং উক্ত ডিভাইসে যদি ইন্টারনেট কানেকশন থাকে তাহলে আপনি পৃথিবীর এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে যেকোন খবর প্রকাশ মুহূর্তের মধ্যেই করতে পারবেন।

টাকা ইনকাম করার সহজ উপায় বাংলাদেশ

ঘরে বসে মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম করা যায় এই কথাটা আমরা বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও ব্লগপোস্টে শুনে থাকে। কিন্তু এগুলো কতটুকু সত্য তা সম্পর্কে আমরা অবগত নয় তাদের জন্যই আমরা আজকের এই আর্টিকেলটি সাজিয়েছে যেখানে ঘরে বসে মোবাইলে ইনকাম করার উপায় কতটুকু সত্য তা বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করা হয়েছে।

অনলাইন থেকে মোবাইলে ইনকাম করার উপায়

আলোচনায় আমরা আপনাদের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ যেদিক অনলাইন থেকে মোবাইল ব্যবহার করে টাকা ইনকাম করার পদ্ধতি নিয়ে বিস্তারিত কিছু তথ্য উপস্থাপন করেছি। আপনাদের সাহায্য করার উদ্দেশ্যে আমরা এখানে বেশ কয়েকটি অনলাইন থেকে মোবাইলের মাধ্যমে টাকা ইনকাম করা যাবে তার উপায় উল্লেখ করা হয়েছে।

ইউটিউব সুপার থ্যাংকস টাকা ইনকাম

অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করার ক্ষেত্রে আপনাকে আমরা প্রথমেই বলতে চাই যে এটা থেকে টাকা ইনকাম করার জন্য আপনাকে ধৈর্যশীল হতে হবে। আপনি যদি মনে করেন স্বল্প সময়ের মধ্যেই অনেক টাকা ইনকাম করতে পারবেন তাহলে এই ধারণাটা সম্পূর্ণ ভুল। চলুন জেনে নেয়া যাক মোবাইলে ইনকাম করার বেশকিছু অনলাইন ট্রিক্স যেগুলা আমরা অনুসরণ করতে পারি।

মোবাইল দিয়ে ফ্রিল্যান্সিং

অনেকেই মনে করেন যে ফ্রিল্যান্সিংয়ের ক্ষেত্রে আমাদের একটি কম্পিউটার জরুরী তাদের উদ্দেশ্যে বলতে চাই হ্যাঁ ফ্রিল্যান্সিং করার জন্য আপনার একটি প্রাইভেট কম্পিউটার জরুরী কিন্তু কোন কারণে যদি আপনি তা সংগ্রহ করতে না পারেন তাহলে মোবাইল দিয়েও ফ্রিল্যান্সিং শুরু করা যায়। মোবাইল নিয়ে বিভিন্ন ধরনের ফ্রিল্যান্সিং করা সম্ভব তবে যেসকল ভারী কাজ রয়েছে যেমন গ্রাফিক্স ডিজাইন ওয়েব ডিজাইন ইত্যাদি কাজগুলো করা সম্ভব নয় তবে ফ্রিল্যান্সিং অনেক বড় হয় আপনি অন্য ক্যাটাগরিগুলো বেছে নিতে পারেন।

ডলার আয় করার সহজ উপায়

মোবাইল দিয়ে ফ্রিল্যান্সিং করার ক্ষেত্রে আপনি সার্ভে করার অপশনটি বেছে নিতে পারেন কেননা একটি জনপ্রিয় মাধ্যম পাশাপাশি খুব সহজেই এই কাজটা পাওয়া যায়। সার্ভে করার জন্য আপনার মোবাইলটি যথেষ্ট তবে আপনাকে একটি মার্কেটপ্লেসে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। freelancer।com fiber।com upwork।com এরকম মার্কেটপ্লেস রয়েছে যেগুলোতে আপনার নিবন্ধিত হওয়ার মাধ্যমে সার্ভে করার সুযোগ পাবেন।

ডিজিটাল মার্কেটিং মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম করা সম্ভব যা ফ্রিল্যান্সিংয়ের অন্যতম একটি অংশ। আপনি যদি অনলাইন থেকে অনেক বেশি একটিভ থাকেন তাহলে বিভিন্ন মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানিগুলো সাথে যুক্ত হয় তাদের পণ্য উৎপাদন সম্পর্কের রিভিউ লিখে ডিজিটাল মার্কেটিং করতে পারেন।

আর্টিকেল রাইটিং

মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম করার আরও একটি জনপ্রিয় মাধ্যম হচ্ছে আর্টিকেল রাইটিং বা কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত। দেশি-বিদেশি অনেক ওয়েবসাইট রয়েছে যারা প্রতিনিয়ত বিভিন্ন ভাষার বিভিন্ন ক্যাটাগরির আর্টিকেল পড়ে থাকেন। এক্ষেত্রে আপনার ভাষাটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আপনি যদি বাংলা ভাষায় জ্ঞানী হয়ে থাকেন তাহলে বাংলা ভাষায় আর্টিকেল লিখতে পারেন অন্যদিকে ইংরেজি ভাষায় ভালো দক্ষতা থাকলে আপনি ইংরেজি ভাষাতে আর্টিকেল লিখতে পারেন।

তবে আমরা মনে করি অনলাইন মার্কেটপ্লেসে ইংরেজি ভাষায় আর্টিকেল দেখলে আপনার চাহিদা অনেক ভালো হবে এবং আপনি অনেক কাজ পাবেন। পাশাপাশি ইংরেজিতে আর্টিকেল লেখার মাধ্যমে আপনি বাংলার চেয়ে দ্বিগুণ পরিমাণ টাকা আয় করতে পারবেন। ওপরের অংশে আমরা যে কয়েকটি ওয়েবসাইটের নাম দিয়েছি সে সকল ওয়েবসাইটগুলোতে আপনি ইংরেজিতে একজন আর্টিকেল রাইটার হিসেবে নিযুক্ত হতে পারেন।

মোবাইলে ফ্রিল্যান্সিং করে টাকা ইনকাম করার উপায়

তাছাড়া বাংলাদেশের অনেক ওয়েবসাইট রয়েছে যেসকল ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আর্টিকেল রাইটিং নিয়মিত করা হয়। আপনি দেশি হোক আর বিদেশী যেকোনো একটি ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে আপনার আর্টিকেল পাবলিশ করতে থাকুন। আমরা ধারণা করছি যে আপনি অতিশীঘ্রই সেখান থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

ইউটিউবে ভিডিও করে

বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ারিং ওয়েবসাইট ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করা যায় তার সম্পর্কে আমরা সকলেই কম বেশি জানি। তবে আমরা অনেকেই মনে করি যে ইউটিউব থেকে ভিডিও করে টাকা ইনকাম করার ক্ষেত্রে আমাদের একটি স্মার্টফোনের চেয়ে কম্পিউটার থাকা অত্যন্ত জরুরী। তবে আপনাদের উদ্দেশ্যে বলতে চাই যে মোবাইল দিয়ে ভিডিও এডিটিং করা সম্ভব এবং একটি ভালো কোয়ালিটির ভিডিও আপনার ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশের মাধ্যমে অতি স্বল্প সময়ের মধ্যেই তারান করা সম্ভব।

তুমি আপনাকে একটি ইউনিক কন্টেন্ট বেছে নিতে হবে অর্থাৎ আপনি এমন কোন কিছু নিয়ে চিন্তা করবেন বা কনটেন্ট তৈরি করবেন যা ইতিমধ্যে কোন ইউটিউবার প্রকাশ করেনি। আপনার ইমেইল প্রদানের মাধ্যমে আপনার ইউটিউব একাউন্ট চালু হবে আপনি ইন সুন্দর একটি নাম দেব একাউন্ট এক্টিভেট করতে পারেন।

বিকাশ থেকে টাকা ইনকাম করুন

অতঃপর আপনার ইউটিউব চ্যানেলে নিয়মিত বিভিন্ন বিষয়ে ভিডিও কনটেন্ট শেয়ার করতে হবে এবং গুগলের কাছে আপনার ইউটিউব চ্যানেলের এডসেন্স এর জন্য এপ্লাই পাওয়াতে হবে। ইউটিউব এর বেশ কিছু শর্তাবলী রয়েছে সেগুলো মেনে চলে যদি আপনি ভিডিও আপলোড করতে থাকেন তাহলে অ্যাডসেন্স পাওয়ার পর আপনার ইউটিউব এর ভিডিও তে বিভিন্ন ধরনের বিজ্ঞাপন প্রদর্শিত হবে।

দেশ ও দেশের বাইরে থেকে যখন কোনো আপনার ভিডিওটি দেখবে তখন বিজ্ঞাপন প্রদর্শন হবে উক্ত স্থানে কোন ব্যক্তি যদি ক্লিক করে থাকে তাহলে তার আপনি সেখান থেকে কিছু অংশ আপনার পেমেন্ট মেথড হবে। সুতরাং ইউটিউব থেকে ভিডিও করে টাকা ইনকাম করা সম্ভব তা সম্পর্কে আপনারা এখন জানতে পারলেন।