টাকা ইনকাম করার সহজ উপায় বাংলাদেশ ২০২২

বাংলাদেশ একটি উন্নয়নশীল দেশ। তথ্য প্রযুক্তির উন্নতির ছোঁয়া ধাপে ধাপে এই উন্নয়নশীল দেশ স্বল্প সময়ের মধ্যেই উন্নত দেশ রুপন্তর হবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। একটু দেশ ও জাতির তখন উন্নত হবে যখন বিদেশ থেকে রেমিটেন্স দেশে প্রবেশ করে। আয়তনের দিক দিয়ে ছোট দেশটির অন্যতম বড় সমস্যা হল বেকারত্ব।

গ্রাজুয়েশন কমপ্লিট করার পর অনেক ছাত্র-ছাত্রী রয়েছে যারা সরকারি চাকরির পেছনে দৌড়ে নিজেদের মূল্যবান সময় নষ্ট করেন। এতে করে চাকরির বয়স শেষ হওয়ার পর তারা বিশাল হতাশার মধ্যে পড়ে যায়। তবে এখন আর চাকরির জন্য আপনাকে ছোটাছুটি করতে হবে না কেননা টাকা ইনকাম করা অনেক সহজ হয়ে গিয়েছে।

বর্তমানে অনেক বেকার উদ্যোক্তা হয়ে খুব স্বল্প সময়ের মধ্যেই সফলতা লাভ করেছেন পাশাপাশি বাংলাদেশের অনেক বেকার রয়েছে যারা ফ্রিল্যান্সিং জগতে প্রবেশ করার মাধ্যমে নিজেরাই বেকারত্ব দূর করেছেন। আজকে আমরা আপনাদের জন্য বেশ কিছু তথ্য উপস্থাপন করতে চলেছি যা টাকা ইনকাম সংক্রান্ত।

আপনারা যারা টাকা ইনকাম করতে চান তাদের উদ্দেশ্যে আমাদের আজকের এই আর্টিকেলটি লিখা হয়েছে যেখানে আমরা ধারাবাহিকভাবে টাকা ইনকাম করার বিস্তারিত সকল তথ্য উপস্থাপন করেছি। আলোচনায় আমরা বেশ কিছু অ্যাপ্লিকেশন ও ওয়েবসাইটের সাথে আপনাদের পরিচয় করিয়ে দেব যেগুলো থেকে আপনি শতভাগ নিশ্চিত ভাবে প্রতি মাসে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

টাকা ইনকাম করার সহজ উপায়

প্রতিযোগিতার বাজারে বর্তমানে নিজেকে টিকিয়ে রাখা অনেক কঠিন। দ্রব্যমূল্যের দাম বৃদ্ধি পাশাপাশি একটি পরিবারকে চালানোর জন্য আপনার টাকার অত্যন্ত প্রয়োজন। যার কারণে আমরা আপনাদের প্রথমেই বলতে চাই যে আপনি যদি মনস্থির করেন টাকা ইনকাম করবেন তাহলে আপনার জন্য আমরা প্রথমেই বলতে চাই টাকা ইনকাম করা এতটা সহজ পদ্ধতি নয়।

অনলাইন হোক আর অফলাইন আপনি যেখান থেকে টাকা ইনকাম করেন না কেন আপনার দক্ষতা ও প্রস্রাব অত্যন্ত জরুরী। আপনার যদি ধৈর্য ও পর্যাপ্ত দক্ষতা থেকে থাকে তাহলে আপনার এই দক্ষতা কে কাজে লাগিয়ে আপনি টাকা ইনকাম করতে পারবেন। আপনাদের মনে অনেক প্রশ্ন জাগতে পারে যে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় টাকা ইনকাম করার ওয়েবসাইট আছে কি এসকল বিষয় গুলোর জন্যই আমরা এখানে সকল প্রশ্নের উত্তর দিয়েছি।

টাকা ইনকাম করার সহজ উপায় অফলাইনে

আলোচনার শুরুতেই আমরা আপনাদের অফলাইন থেকে কিভাবে টাকা ইনকাম করবেন তা সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু ধারনা দেবো। তবে প্রথমেই আপনাকে বলে রাখি অনলাইন থেকে আপনাকে একজন সফল উদ্যোক্তা হওয়ার জন্য মূলধন থাকা অত্যন্ত জরুরী। মূলধন কম হোক আর বেশি আপনাকে অবশ্যই একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ মূলধন থাকা লাগবে এবং মূলধনের ওপর ভিত্তি করে আপনার একটি ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের তৈরি হবে। নিচের অংশে আমরা আপনাদের জন্য বেশকিছু টাকা ইনকাম করার সহজ উপায় উল্লেখ করেছি।

বিকাশ এজেন্ট

বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় মোবাইল ব্যাংকিং সেবা বিকাশ সারা দেশব্যাপী তাদের শাখা ও উপশাখার প্রতিষ্ঠা করেছেন। আপনি চাইলে এখন একজন বিকাশ এজেন্ট হতে পারেন। এতে করে আপনি বিকাশের দেওয়া একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ টার্গেট ফিলাপ করতে পারলে সেখান থেকে বড় অঙ্কের মুনাফা পেতে পারেন।

রিভিউ লিখে টাকা ইনকাম

বিকাশ এজেন্ট হওয়ার জন্য প্রথমে আপনাকে একটি দোকান ভাড়া করতে হবে। দোকান ভাড়া করার পর আপনি বিকাশের এজেন্ট এর জন্য রেজিস্ট্রেশন করাতে হবে অর্থাৎ আপনাকে বিকাশের একজন এজেন্ট হওয়ার জন্য বিকাশ কর্তৃপক্ষ বরাবর আবেদন করতে হবে। বিকাশ এজেন্ট হিসেবে আবেদন করার সময় আপনাকে জাতীয় পরিচয় পত্র ফটোকপি এবং লাইসেন্স সনদ সাবমিট করা জরুরি।

আপনি যখন বিকাশ এজেন্ট হিসেবে নিযুক্ত হবে তখন প্রতি সপ্তাহে আপনাকে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ টার্গেট দেওয়া হবে। সাপ্তাহিক টার্গেট এর পাশাপাশি মান্থলি ও বাৎসরিক টার্গেট ফিলাপ করতে পারলে আপনি একজন বিকাশের বড় এজেন্ট হিসেবে স্বল্প সময়ের মধ্যেই প্রতিষ্ঠিত হতে পারব।

টিউশনি করা

বর্তমানে বাংলাদেশের টাকা ইনকাম করার অন্যতম একটি মাধ্যম হয়েছে টিউশনি বা প্রাইভেট পড়ানো। আপনি যদি শিক্ষা অবস্থায় টিউশনি করানো শুরু করেন তাহলে আপনার গ্রাজুয়েশন শেষ করে সহজেই যেকোনো প্রাইভেট সেন্টার অথবা কোচিং সেন্টার চালু করতে পারেন। তবে এক্ষেত্রে আপনাদের জন্য আমাদের বিশেষ নির্দেশনা এজে আপনি যদি ভাল কোন বিষয় বিশেষ করে ইংরেজি ও গণিতে পারদর্শী হয়ে থাকেন তাহলে টিউশনি করে টাকা ইনকাম করা অনেকটাই সহজ।

আপনি আপনার স্থানীয় এলাকায় লিফলেট প্রকাশ করে আপনার টিউশনি অথবা কোচিং সেন্টারের প্রচারণা চালাতে পারেন। প্রথমদিকে প্রচারণা চালানো হলেও ধীরে ধীরে আপনার পরিচিতি লাভ করবে এবং আপনি স্বল্প সময়ের মধ্যেই একজন ভালো টিউশন টিচার হতে পারেন।

ডেলিভারি ম্যান

বাংলাদেশের শহর অঞ্চলের পাশাপাশি বর্তমানে গ্রামাঞ্চলেও বিভিন্ন ওয়েবসাইটগুলো তাদের নিয়মিত ডেলিভারি বয় নিয়োগ প্রদান করছে। বিভিন্ন কুরিয়ার সার্ভিস রাইডিং ই-কমার্স ওয়েবসাইট গুলো প্রতিনিয়ত নতুন রাইডার খুঁজে চলেছেন। আপনার যদি মোটর বাইক অথবা পায়ে চালিত সাইকেল থেকে থাকে তাহলে আপনি সহজেই এই কাজটি করতে পারবেন।

বাংলাদেশের ফুডপান্ডা দারাজ রেডেক্স কুরিয়ার সার্ভিস ইত্যাদি ই-কমার্স ওয়েবসাইট গুলো এলাকাভিত্তিক ডেলিভারি ম্যান নিয়োগ প্রদান করছেন। আপনি আপনার প্রয়োজনীয় সকল তথ্য ও লাইসেন্স নাম্বার জমা দিয়ে এসকল কোম্পানির সাথে নিয়োগপ্রাপ্ত কর্মচারী হিসেবে কাজ করতে পারেন। একজন ডেলিভারি ম্যান হিসেবে আপনি প্রতিদিন 500 থেকে 1000 টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সহজ উপায়

অফলাইনের চেয়ে অনলাইন এ সবচেয়ে সহজে টাকা ইনকাম করা সম্ভব। ওপরের অংশে আমরা আপনাদের জন্য অফলাইনে কিভাবে টাকা ইনকাম করা সম্ভব তা সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু তথ্য উপস্থাপন করেছেন। আলোচনার এই অংশে আমরা আপনাদের অনলাইনে টাকা ইনকাম করার বেশকিছু মাধ্যম নিয়ে আলোচনা করব।

ফেসবুকে ব্যবসা

জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক বর্তমানে দূরের কাছের বন্ধু বান্ধবের সাথে কথা বলার জন্য ব্যবহার করা হচ্ছে না। এখন আর আপনি আপনার মূল্যবান সময় ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একে অন্যের সাথে কথোপকথনের মাধ্যমে ব্যয় করার পাশাপাশি আপনার আয়ের অন্যতম উৎস হতে পারে। কেননা ফেসবুক কর্তৃপক্ষ তাদের ব্যবহারকারীদের সুবিধার্থে বড় একটি মার্কেটপ্লেস তৈরি করেছে যেখান থেকে আপনি টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

ফেসবুকে গল্প লিখে টাকা আয় করুন

আপনি ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন অনলাইনের মাধ্যমে এতে করে আপনাকে একটি ফেসবুক পেজ অথবা বড় ধরনের গ্রুপ তৈরি করা লাগবে। প্রযুক্তির উন্নয়নের কারণে মানুষ বর্তমানে ঘরে বসে থেকে সবকিছু পেতে চায় যার কারণে তারা অনলাইন ভিত্তিক যে সকল ব্যবসা রয়েছে সেখানে তারা নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস অর্ডার করে থাকে।

আপনার যদি একটি বড় মাপের ফেসবুক পেজ অথবা গ্রুপ থেকে থাকে তাহলে আপনি তার সাহায্যে বিভিন্ন মৌসুমী ফসল অথবা ফল দেশের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে বিক্রি করতে পারেন। আপনার ফেসবুক পেজে যারা আপনাকে অনুসরণ করে তারা খুব সহজেই এ পণ্যগুলো ক্রয় করার প্রতি আগ্রহ প্রকাশ করবে এবং আপনি একটি নির্দিষ্ট দাম নির্ধারণ করবেন পণ্যগুলোর যাতে তারা ক্রয় করে। এভাবেই খুব স্বল্প সময়ের মধ্যেই আপনি ফেসবুকে নিজের ব্যবসা প্রতিষ্ঠা করতে পারেন।

আর্টিকেল লেখা

আপনার যদি বাংলা ও ইংরেজি বিষয়ে ভালো জ্ঞান থেকে থাকে এবং লেখালেখি করার প্রতি ঝোঁক থাকে তাহলে আপনার দক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে আপনি অনলাইন মার্কেটপ্লেস থেকে প্রতিদিন 500 থেকে 1000 টাকার বেশি ইনকাম করতে পারবেন। বাংলাদেশের ওয়েবসাইট রয়েছে যারা প্রতিনিয়ত আর্টিকেল রাইটার নিয়োগ প্রদান করছেন এতে করে তাদের ওয়েবসাইটে বিভিন্ন বিষয়ে লিখা জন্য রাইটার নিয়োগ প্রদান করেন।

গেম খেলে টাকা ইনকাম

আপনার যদি শিক্ষা টেকনোলজি স্বাস্থ্য খেলাধুলা ইত্যাদি বিষয়ে ভালো জ্ঞান থেকে থাকে তাহলে আপনি আপনার এই দক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে আর্টিকেল লিখে টাকা ইনকাম করতে পারেন। তবে আর্টিকেল লিখার ক্ষেত্রে আপনাকে বেশ কিছু নির্দেশনা অনুসরণ করতে হবে আপনার লেখা আর্টিকেল অন্য কোন ব্লগে থেকে সরাসরি কপি করা যাবে না। প্রতি 1000 শব্দের জন্য আপনাকে 100 টাকা করে প্রদান করা হবে। কর্তৃপক্ষ আপনাকে একটি নির্দিষ্ট কিওয়ার্ড দেবে উক্ত কি ওদের ওপর ভিত্তি করে আপনাকে আর্টিকেল লিখতে হবে।

ই-কমার্স ওয়েবসাইট তৈরি করে

আপনার যদি নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য সম্পর্কে ভালো ধারণা থেকে থাকে তাহলে আপনি অনলাইন মার্কেটপ্লেসে ই-কমার্স ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারেন। ই-কমার্স ওয়েবসাইট গুলো ওই ধরনের ওয়েবসাইট যেসকল ওয়েবসাইটের সাধারণত বিভিন্ন ধরনের পণ্য কেনাবেচা হয়। এক কথায় বলতে গেলে ইহা একটি মার্কেটপ্লেস যেখানে অনলাইন ভিত্তিক সকল জিনিস ক্রয় করা হয় বিক্রয় করা হয়।

ওয়েবসাইট খুলে টাকা ইনকাম

উদাহরণস্বরূপ বলতে পারি বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় ই-কমার্স ওয়েবসাইট হচ্ছে দারাজ। আপনি ইলেকট্রনিক্স পণ্য অথবা অন্যান্য যেকোন বিষয়ের একটি ই-কমার্স ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারেন। তবে ই-কমার্স ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য আপনাকে অবশ্যই ওয়েব ডেভলপিং ও ওয়ার্ডপ্রেস সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা থাকতে হবে।