কপিরাইটিং করে আয় বিকাশে পেমেন্ট

অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করা যায় এ বিষয়ে আমরা সকলে হয়তো জানি। কিন্তু বিভিন্ন বিভিন্ন মাধ্যম রয়েছে যে সকল খাত থেকে আপনি চাইলেই টাকা ইনকাম করতে পারবেন। আজকে আমরা অর্জন করতে চলেছি সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় একটি টাকা ইনকাম করার উৎস সম্পর্কে যার নাম হল কপিরাইটিং।

অনেকের মনে প্রশ্ন হতে পারে যে কপিরাইটিং কি তাদের উদ্দেশ্যে বলতে চাই যে এমন একটি ধারণা যেখানে একজন কপিরাইটার কোন ধরনের এডভারটাইজিং বিজ্ঞাপন মার্কেটিংয়ের জন্য অনুলিপি তৈরি করে। এখানে অনুলিপি লেখার মানে হল সে কোন একটি পণ্যের প্রমোট করার জন্য লেখালেখি করে ওয়েবসাইট বা বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার দেয়।

সহজ কথায় বলতে গেলে আপনি কোন পণ্য অনলাইন মার্কেটে সেল করবেন এক্ষেত্রে আপনার যে পোস্টার বা পণ্যের প্রমোশন নজর দিয়ে লেখালেখি করে নিজের ওয়েবসাইটে বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক টুইটার ইনস্টাগ্রাম এ বিষয়ে রিভিউ লিখতে হবে। এতে করে ভালো রিভিউ পেলে তা খুব তাড়াতাড়ি বিক্রি হয়। এটি একধরনের কপিরাইটিং কাজ যার মাধ্যমে আপনি প্রতি উপর গড়ে তুলবেন।

আপনার যদি এরকম দক্ষতার থেকে থাকে তাহলে এই দক্ষতার সাহায্যে আপনি প্রতি মাসে হাজার হাজার ডলার ইনকাম করতে পারবেন। বিশেষ করে যাদের লেখালেখির ব্যাপারে আগ্রহ রয়েছে তারা চাইলে এই কাজটাকে বেছে নিতে পারেন। অন্যদিকে আপনার যদি আর্টিকেল লেখা বিশেষ করে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং সম্পর্কিত আর্টিকেল লেখা বিষয়ে দক্ষতা থাকে তাহলে আপনার জন্য সুবর্ণ সুযোগ।

কপিরাইটিং করে টাকা ইনকাম করতে কি কি প্রয়োজন?

এই কাজটি আপনি প্রফেশনাল হিসেবে নিতে পারেন যার কারণে আপনাকে এইখান থেকে টাকা বের করার জন্য অবশ্যই ভালো দক্ষতা থাকতে হবে। দিক সম্পর্কে আপনাকে নির্দিষ্ট একটি পণ্যের ভালো খারাপ দিক সম্পর্কে মোটামুটি একটি ভালো মানের রিভিউ লিখতে হবে। এতে করে আপনার পণ্য সম্পর্কে অবশ্যই ধারণা থাকা জরুরি।

অনলাইনে রিভিউ লিখে ইনকাম

  • প্রডাক্ট বর্ণনায় অবশ্যই প্রোডাক্ট এর ইতিবাচক বৈশিষ্ট্য এবং কাস্টমারদের কোন কোন সমস্যায় প্রডাক্টিভ সহজে সমাধান করতে পারবে তা উল্লেখ করতে হবে।
  • মার্কেটিং এমন ভাবে করতে হবে যাতে কাস্টমাররা এ প্রোডাক্ট এর প্রতি আকর্ষিত হয় এবং পণ্যটি ক্রয় করতে চাই।
  • কপিরাইটিং এর জন্য প্রথমে এর মূল কনসেপ্ট এবং যুক্তিকে অনুধাবন করতে হবে।

কপিরাইটিং করে অনলাইনে আয়ের উপায়

একজন ভাল কপিরাইটার মোটা অংকের টাকা আয় করতে পারে শুধুমাত্র একটি সিঙ্গেল অনুলিপি তৈরি করার মাধ্যমে। কাজ শুরুর দিকে টাকা আয় করার সম্ভাবনা কম থাকলে আপনি ধীরে ধীরে অভিজ্ঞতা অর্জন করার পর একজন প্রফেশনাল কপিরাইটার তৈরি হওয়ার পর খুব সহজে যে কোন বড় ধরনের কন্টাক্ট গ্রহণ করতে পারেন। মার্কেটপ্লেসে যদি আপনার রিভিউ ভালো থাকে তাহলে বিভিন্ন কোম্পানির মালিকরা আপনার সাথে সরাসরি যোগাযোগ করবে।

যখন আপনি কপিরাইটিং এর ব্যাপারে ভালো এক্সপার্ট হয়ে যাবেন তখন আপনি প্রতি 100 অনুলিপি তৈরি করার জন্য এক হাজারেরও বেশি ডলার আয় করার সুযোগ পাবেন। তবে মনে রাখবেন কপিরাইটিং করার জন্য আপনি শুধুমাত্র নিজের দক্ষতা ব্যবহার করে প্রোডাক্ট এর সম্পূর্ণ ভালো দিকগুলো মাথায় নিয়ে ভালো একটি অনুচ্ছেদ লিখি এর সাথে আকর্ষণীয় কথাবার্তা যোগ করে সম্পূর্ণ রিভিউ লিখতে হবে।

বিকাশ থেকে টাকা ইনকাম

তবে ইন্টারন্যাশনাল মার্কেটপ্লেসগুলোতে সাধারণত ইংরেজি ভাষায় কপিরাইটিং সার্ভিস দেওয়া হয় যার কারণে আপনি ঐ সকল ওয়েবসাইটে যখন অনুলিপি রিভিউ করবেন তখন অবশ্যই ইংরেজি ভাষায় আপনার দক্ষতা থাকতে হবে। তবে আমরা আপনাদের নির্দ্বিধায় বলতে পারি যে যেহেতু এ বিষয়ে অনেকের ধারণা নাই তাই আপনি যদি এ বিষয়ে একটি অনলাইন থেকে কোর্স করে ফেলেন তাহলে সহজেই টাকা ইনকাম করতে পারবেন বলে মনে করে।

কপিরাইটিং করে আয় করার ওয়েবসাইট

আলোচনার এই অংশে আমরা আপনাদের জন্য বেশ কয়েকটি ওয়েব সাইটের সাথে পরিচয় করিয়ে দেব যে সকল ওয়েব সাইটে আপনি নিজস্ব প্রোফাইল তৈরি করে দক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে কপিরাইটিং এর একটি আলাদা ক্যাটালগ তৈরি করা হয়েছে সেই ক্যাটালগ থেকে আপনি চাইলেই নিজের কাজ বেছে নিতে পারেন।

তবে বাংলাদেশি ফ্রীলান্সিং সাইটস Blancer এ ওয়েব সাইটে আপনি কপিরাইটিং করে টাকা আয় করা শুরু করতে পারেন এখানে বাংলা ভাষায় কপিরাইটিং করতে পারবেন কেননা এটি সম্পূর্ণ বাংলাদেশি ফ্রীলান্সিং সাইটস। এই ওয়েবসাইটে কাজ করার মাধ্যমে আপনি কপিরাইটিং করে বিকাশের মাধ্যমে পেমেন্ট গ্রহন করতে পারবেন।

ফেসবুকে গল্প লিখে টাকা আয়

নিজস্ব ওয়েব সাইট আছে যেখানে কপিরাইট হিসেবে কাজ করতে পারবেন তবে সেগুলোতে আপনাকে ইংরেজি ভাষায় রিভিউ লিখতে হবে। আপনাদের সুবিধার্থে আমরা নিচের অংশে এ সকল ওয়েবসাইটের লিংক প্রদান করলাম।

  • Iwriter।com
  • Textbroker।com
  • Writeraccess।com

এসকল ওয়েবসাইটের লিংকে প্রবেশ করে আপনাকে উপযুক্ত তথ্য প্রদান করার মাধ্যমে সাইনআপ করে কাজ শুরু করতে হবে। চেষ্টার মাধ্যমে আপনি দীর্ঘদিন যাবৎ এ সকল ওয়েবসাইট এ বিভিন্ন ধরনের রিভিউ ও কপিরাইটিং প্রদান করতে পারবেন এবং একজন দক্ষ কপিরাইটার হওয়ার পরে এখান থেকে প্রতিমাসে মোটা অঙ্কের টাকা ইনকাম করতে পারবেন। একজন ভাল কপিরাইটার হওয়ার জন্য আপনাকে ব্যাকরণগত অনেক বেশি শক্তিশালী হতে হবে এতে করে আপনি খুব সহজে কাজ করতে পারবেন।