গান লিখে আয় ২০২২ অনলাইনে গান বিক্রি করে টাকা ইনকাম

বর্তমানে টাকা ইনকাম করার অনেক বেশি প্লাটফর্ম তৈরি হয়েছে আপনি শুনলে অবাক হবেন যে গান বা গানের লিরিক্স লিখে টাকা আয় করা সম্ভব। আজকের এই আলোচনায় আমরা আপনাদের জন্যই তৈরি করেছি কারণ আজকে আমরা আলোচনা করতে চলেছি গান লিখে কিভাবে ইনকাম করা যায় তা সম্পর্কে।

আমরা আপনাদের বেশ কিছু জনপ্রিয় ওয়েবসাইট এর সাথে পরিচয় করে দেবো যে সকল ওয়েব সা যাদুকরের শব্দ ফুঁটিয়ে গানেরইটে আপনি নিয়মিত গান লিখে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। পাশাপাশি আপনার যদি গানের প্রতি অভিজ্ঞতা অর্জন করতে চান তাহলে সকল ওয়েবসাইটে আপনাকে গান কিভাবে লিখতে হয় তা খুব সাবলীলভাবে শেখানো হবে।

আমাদের মাঝে অনেকেই রয়েছে যারা স্বভাবতই গান লিখতে পছন্দ করেন। এক কথায় বলতে গেলে তারা ট্যালেন্টেড লোক হওয়ার কারণে তাদের জাদু করেছে এই গান লিখতে পারেন। ঐসকল ব্যক্তিত্বের জাদুকরী শব্দও ফুঁটিয়ে গানের মাহাত্ম্য আরো বেশি বাড়িয়ে দেন তাদের জন্য আমরা বেশ কিছু ওয়েবসাইট এর সাথে পরিচয় করিয়ে দিব যেখানে আপনি আপনার গান পরিবেশন করতে পারবেন। আপনি এসব ওয়েবসাইটে যেকোনো ভাষায় আপনার লিরিকস দেখতে পারবেন পাশাপাশি তা প্রকাশ করতে পারবেন।

গান লিখে আয় করার উপায়

বেশিরভাগ লোকের রয়েছেন যে গান লেখার মত ট্যালেন্ট সবার থাকে না নিজের ট্যালেন্ট কে যাচাই করার জন্য আপনি আমাদের দেওয়া নিচের ওয়েবসাইটগুলোতে ভিজিট করতে পারেন। পাশাপাশি আপনি যদি নিজে একজন আর্টিস্ট হয়ে থাকেন তাহলে আপনি এসকল ওয়েবসাইটে নিজের লেখা গানগুলো প্রকাশ করতে পারেন।

ডলার আয় করার উপায়

যারা মূলত গান লিখে তাদেরকে আমরা গীতিকার বলিনি যদি একজন প্রফেশনাল গীতিকার হতে চান তাহলে আপনার দ্বারা গান লিখে টাকা ইনকাম করা সম্ভব। নিজের ওয়েবসাইট এর সাথে পরিচয় করিয়ে দিয়েছিল এখন পর্যন্ত ঠিকভাবে কাজ করে চলেছেন। তবে এসকল ওয়েবসাইটে ইংরেজিতে গান লিখে পাবলিশ করলে সবচেয়ে বেশি ভালো হয়।

Nashville Song Writers

বর্তমানে সবচেয়ে জনপ্রিয় একটি ওয়েবসাইট হল এটি যেখানে গীতিকার জানান তারা নিজেদের লিরিকস প্রকাশ করতে পারেন। তবে এই ওয়েবসাইটটি আপনার থেকে আপনার লিরিক ফ্রিতে গ্রহণ করেনা তারা আপনার লিরিকের বিনিময়ে টাকা প্রদান করে। বিভিন্ন মিউজিক রয়েছেন যারা তাদের জন্য লিরিক খুঁজে থাকেন তারা সাধারণত যে সকল ওয়েবসাইটের মাধ্যমে কাজ করে তাদের থেকে সকল লিরিকগুলো ক্রয় করেন।

মাসে 10000 টাকা ইনকাম করার উপায়

শুধু গান লেখার মাধ্যমে আপনি নিজের গাওয়া গান শেয়ার করতে পারেন তা যখন কোন একটি রেডিও তো সমান হয় তখন সেখান থেকেও আপনি উপার্জন করতে পারবেন। এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে আপনি আপনার গান সাবমিট করার পর ওয়েবসাইটের মালিকরা আপনার গানগুলো যাচাই করবে কোন ধরনের কপিরাইট ইস্যু রয়েছে কিনা তা তারপর তাদের ওয়েবসাইটে পাবলিশ করবে। তবে এই ওয়েবসাইটে ইংরেজি গানের লিরিক্স সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয়তা ইংরেজিতে গান লিখতে পারেন তাহলে সেটা আপনার জন্য ভালো হয়।

TuneCore

সাইটটি সাধারণত নিজের গাওয়া গান এবং গানের সুর বিক্রি করার জন্য জনপ্রিয়। চাইলে গানের লিরিক্স বিক্রি করতে চান তাও এই সাইটের মাধ্যমে বিক্রি করতে পারেন। এই মার্কেটপ্লেসে বিভিন্ন ধরনের কাস্টমার রয়েছে যারা কোনো একটি নিজস্ব কিংবা কোন একটা বিষয়ে গানের লিরিক্স খুঁজে থাকেন। আপনার গানের লেখা যদি ভাল হয় তাহলে তারা আপনার গানটি মোটা অংকের টাকা দিয়ে ক্রয় করবে।

SongBay 

এটি একটি অনলাইন লিরিকস মার্কেটপ্লেস কিছু নির্ধারিত ক্রেতাদের কাছে নিজের গানের লিরিক্স আপনি এখানে বিক্রি করতে পারবেন তারা সবসময় একজন অভিজ্ঞ গীতিকারের খুঁজে থাকেন। এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে লিরিকস বিক্রি করার সবচেয়ে বড় সুবিধা হলো এখানে ট্রান্সলেট করে গানের লিরিক বিক্রি করা যায়। তবে মনে রাখবেন আপনার লিরিকস অবশ্যই শ্রুতি মধুর হতে হবে যাতে তারা সেটা শোনার পর মুগ্ধ হয়।

বাংলাদেশ থেকে সার্ভে করে ইনকাম

এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বিভিন্ন ডিভাইস ব্যবহার করে আপনি আপনার নিজের লিরিকস সাজিয়ে নিতে পারবেন। এখান থেকে টাকা ইনকাম করার নির্দিষ্ট কোন লিমিট নেই অর্থাৎ আপনি যত বেশি আয় করতে পারবেন তা আপনার পারফরমেন্সের উপর নির্ভর করছে। এখানে লাইসেন্স কিংবা কপিরাইট দেওয়ার মাধ্যমে তাদের কাছে পৌঁছে দেওয়া খুব সহজেই সম্ভব।

SoundBetter

একজন গীতিকার অর্থাৎ যে গান রচনা করেন এরকম গীতিকার হিসেবে আপনি এই ওয়েবসাইটে রেজিস্ট্রেশন করার মাধ্যমে উপার্জন করতে পারবেন। এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে গান লিখে টাকা ইনকাম করা যেমন সহজ সেখানে লিরিকস রচনার পাশাপাশি পজিটিভ রিভিউ পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সুতরাং আপনার মুল্যবান গানের লিরিক্স এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে প্রকাশ করুন এবং অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করুন।

ওপরের অংশে যে সকল ওয়েবসাইট নিয়ে আলোচনা করেছি সেগুলো ব্যবহার করে আপনি প্রতিমাসে মোটা অঙ্কের টাকা ইনকাম করতে পারবেন। গান লেখা একটি ট্যালেন্ট এর ব্যাপারে ট্যালেন্টেড দাম দেওয়ার জন্যই আমরা এই আর্টিকেলটি লিখেছি। সুতরাং আপনার মূল্যবান সময়কে কাজে লাগান এবং অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করুন।