বিকাশে ডিপিএস সেভিংস করার নিয়ম ২০২২

দৈনন্দিন জীবনে আপনি টাকা ইনকাম করতে থাকবেন কিন্তু আপনি ভবিষ্যতের কথা ভেবে অবশ্যই এই টাকাটা নিরাপদ ভাবে সংরক্ষন করে রাখতে চাইবেন। এই অবস্থায় বিকাশ তাদের গ্রাহকদের জন্য ডিপিএস সিস্টেম বের করেছে যার মাধ্যমে আপনি বিকাশ একাউন্টে একাউন্টে টাকা জমা রাখতে পারবেন। পাশাপাশি এটা কার মাধ্যমে আপনি ইন্টারনেট পেয়ে থাকবেন। আজকে দেখাব কিভাবে বিকাশ একাউন্ট খুলতে হয় এবং এই একাউন্টে কত টাকা ইন্টারেস্ট দেওয়া হয় তার সকল বিস্তারিত তথ্য।

2021 সালের শেষের দিকে বিকাশ মোবাইল ব্যাংকিং কর্তৃপক্ষ তাদের গ্রাহকদের জন্য বিকাশ কিংবা ডিপিএস সিস্টেম চালু করেছে। এখন আপনি ঘরে বসে থেকে বিকাশ অ্যাপ ব্যবহার করে খুব সহজেই বিকাশের ডিপিএস অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন পাশাপাশি এই একাউন্টে টাকা শেভিং হিসেবে রাখতে পারবেন।

বিকাশ সেভিংস স্কিম কি? বিকাশ ডিপিএস পরিচিতি

আলোচনার শুরুতেই আমরা আপনাদের বিকাশ সেভিংস স্কিম সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু তথ্য উপস্থাপন করব। অন্যান্য সেভিংস স্কিম বা ডিপিএস এর মতই বিকাশ মোবাইল ব্যাংকিং সেবার মাধ্যমে এই নতুন প্রক্রিয়া চালু করেছে।

বিকাশ সেভিংস স্কিম এমন একটি প্রক্রিয়া যার মাধ্যমে আপনার একাউন্ট থেকে নির্দিষ্ট একটি পরিমাণ প্রতিমাসে অর্থ কেটে নেওয়া হবে এবং নির্ধারিত সময় অতিক্রম হওয়ার পর সুদসহ আপনার টাকাটা ফেরত দেওয়া হবে। অর্থাৎ আপনার ডিপিএস এর মেয়াদ উত্তীর্ণ হলে আপনি সুদ সমেত পুরো অর্থ ফেরত পাবেন এবং এই টাকা পাঠানোর ক্ষেত্রে কোন ধরনের ভ্যাট কাটা হবে না।

এক কথায় বলতে গেলে অন্যান্য ব্যাংক, এনজিও সেবাগুলো যে প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ডিপিএস চালু করেছে সেই প্রক্রিয়ার মাধ্যমে বিকাশ সেভিংস স্কিম প্রক্রিয়া চলমান থাকবে।

Screenshot-2022-02-20-at-7-43-41-PM

আপনাদের মধ্যে প্রশ্ন রয়েছে যে বিকাশ সেভিংস অর্থাৎ ডিপিএস অ্যাকাউন্ট এর মেয়াদ কত সাধারণভাবে বিকাশের দেওয়া ঘোষণা অনুযায়ী আমরা জানতে পারি যে আপনার ডিপিএস এর মেয়াদ 1 বছর, 2 বছর অথবা চার4বছর পর্যন্ত টাকা সংরক্ষণ করে রাখা যাবে এবং টাকা উত্তোলনের সময় আপনার থেকে বাড়তি কোনো অর্থ গ্রহণ করা হবে না।

বিকাশ অ্যাপ দিয়ে টাকা জমানোর নিয়ম – বিকাশ ডিপিএস খোলার নিয়ম

আপনি যদি বিকাশের ডিপিএস ব্যবহার করতে চান তাহলে অবশ্যই আপনার স্মার্টফোনে বিকাশ অ্যাপ ইন্সটল করতে হবে এবং ইন্সটল করার মাধ্যমেই আপনি অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে টাকা জমাদান করতে পারবেন। আলোচনায় অংশ আমরা আপনাদের দেখাবো বিকাশ একাউন্ট কিভাবে খুলতে হয় তার সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু তথ্য।

বিকাশ অ্যাপ থেকে সেভিংস স্কিম খোলা যাবে। বর্তমানে আইডিএলসির সাথে এই স্কিম ওপেন করা যাচ্ছে। আশা করা যাচ্ছে ভবিষ্যতে আরো নতুন কোন প্রতিষ্ঠান বিকাশ ডিপিএস এর সাথে যুক্ত হবে।

  • প্রথমে আপনার বিকাশ অ্যাপ টি ওপেন করুন আপনার মোবাইল নাম্বার ও পিন নাম্বার প্রদান করে বিকাশ একাউন্টে লগইন করুন।
  • একাউন্টে লগইন করার পর হোমপেজ আসলে সেভিংস অপশনে ক্লিক করুন।
  • নতুন সেভিংস স্কিম খুলুন অপশনে চাপুন।
  • পরবর্তী ধাপে আপনার ডিপিএস এর মেয়াদ নির্বাচন করুন 2 বছর, 3 বছর অথবা 4 বছর এবং মাসিক চুক্তি অপশনে ক্লিক করুন।
  • আপনি প্রতি মাসে কি পরিমাণ টাকা (৫০০/১,০০০/২,০০০/৩,০০০) জমা রাখতে চান আপনার একাউন্টে তা লিখুন।
  • পরবর্তীতে মোট জমির পরিমাণ আপনাকে দেখানো হবে।
  • এরপর নমিনির বিস্তারিত কিছু তথ্য যেমন নাম জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর ইত্যাদি প্রদান করতে হবে তা অবশ্যই যথাযথভাবে পূরণ করবেন
  • সেভিংস এর উদ্দেশ্যে অপশনে ক্লিক করুন।
  • সেভিংস মেমোরিতে আপনার সকল তথ্য প্রদর্শিত হবে আপনার দেওয়া তথ্যগুলো যদি সঠিক হয়ে থাকে তাহলে পরবর্তী ধাপে চলে যান।
  • বিকাশ কর্তৃপক্ষ কর্তৃক নিয়ম ও নির্দেশনা মানতে সম্মতি প্রকাশ করতে ইয়েস অপশনে ক্লিক করুন।
  • বিকাশ একাউন্টের পিন নাম্বার যথাযথভাবে লিখুন।
  • সবশেষে স্কিনের নিচের অংশে লং প্রেস করুন।

সেভিংস স্কিম সম্পর্কিত নিয়ম ও শর্তাবলী

আইডিএলসি ও বিকাশ তাদের সম্মিলিত চেষ্টায় এই প্রক্রিয়া চালু করেছে তাই আপনারা যারা বিকাশ একাউন্ট থেকে সেভিংস একাউন্ট খুলতে চান তারা অবশ্যই কর্তৃপক্ষের দেওয়া নির্দেশনা মেনে চলবেন। নিচের অংশে আমরা বিকাশ অনুমোদিত যে সকল নিয়ম ও শর্তাবলী দেওয়া রয়েছে তা প্রদান করলাম।

  • একটি বিকাশ একাউন্ট থেকে একাধিক বিকাশ সেভিংস অথবা ডিপিএস অ্যাকাউন্ট খোলার নিয়ম রয়েছে।
  • যেকোনো প্রয়োজনে আপনি নমিনির তথ্য পরিবর্তন করতে পারবেন পাশাপাশি যেকোনো সময় নমিনি পরিবর্তন করা সম্ভব।
  • সেভিংস স্কিম এর ক্ষেত্রে আইডিএলসি ও বিকাশ কর্তৃপক্ষ কোন ধরনের বাড়তি টাকা গ্রহণ করবে না।
  • বিকাশ অ্যাপের সেভিংস সেকশন হতে ইটিআইএন তথ্য আপডেট করলে সেক্ষেত্রে সেভিংস স্কিম থেকে অর্জির লাভের উৎসে অপেক্ষাকৃত কম ট্যাক্স প্রযোজ্য হবে।
  • আপনার ডিপিএস এর মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ার পর কোন ধরনের চার্জ ছাড়াই টাকা উত্তোলন করা যাবে।
  • সেভিংস স্কিম চালু করার তিন মাসের পূর্বে আপনার ডিপিএস টিপ বাতিল করা যাবে না অর্থাৎ আপনি ডিপিএস ভেঙে অর্থ তুলতে পারবেন না।
  • সেভিংস একাউন্ট ডিপিএস মেয়াদপূর্তির পূর্বে যদি আপনি টাকা উত্তোলন করেন বা ডিপিএস ভেঙে ফেলেন এক্ষেত্রে আপনাকে কোন ধরনের ইন্টারেস্ট প্রদান করা হবে না।
  • আপনার বিকাশ একাউন্টে পর্যাপ্ত পরিমান টাকা না থাকলে আপনাকে সর্বোচ্চ 2 দিন সময় দেওয়া হবে এই সময়ের মধ্যেই আপনাকে ডিপিএস প্রদান করতে হবে।

বিকাশ ডিপিএস এ সুদের পরিমাণ

বিকাশ সেভিংস ফিচার ব্যবহার করে গ্রাহক আইডিএলসিতে যে টাকা সঞ্চয় করবেন তার জন্য গ্রাহককে সুদ দেওয়া হবে। বিকাশের এই নতুন ডিপিএস সিস্টেম এর মাধ্যমে গ্রাহকরা তাদের টাকা সঞ্চয় করার সুযোগ পাবে। এখন একজন গ্রাহক হিসেবে আপনি অবশ্যই পিপিএফ ইন্টারেস্ট এর পরিমাপ সম্পর্কে জানতে চাইবেন নিচের অংশে আমরা ধারাবাহিকভাবে আলোচনা করলাম।

IDLC তে বিকাশের মাধ্যমে রয়েছে মান্থলি ৫০০, ১০০০, ২০০০ অথবা ৩০০০ টাকার DPS ফ্যাসিলিটি যা ২৪, ৩৬ অথবা ৪৮ মাসের জন্য আইডিএলসি দিয়ে থাকে। আরও বিস্তারিত তথ্য জানতে আইডিএলসসি হটলাইন 16409 (রবি-বৃহস্পতিবার সকাল 9am-10pm) নম্বরে যোগাযোগ করা যেতে পারে।

উপরের দেওয়া সকল তথ্য গুলো বিকাশের অফিশিয়াল ওয়েবসাইট ওপেন থেকে সংগ্রহ করা। তাই আপনি নির্দ্বিধায় তা বিশ্বাস করতে পারেন এবং বিকাশ দীর্ঘদিন যাবত আমাদের দেশে মোবাইল ব্যাংকিং সেবা প্রদান করে এসেছে তাই এখানে ডিপিএস চালু করে আপনি নিশ্চিন্তে আপনার টাকা সঞ্চয় করতে পারেন।