অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটার নিয়ম ২০২২ নতুন পদ্ধতিতে eticket.railway.gov.bd

তথ্য প্রযুক্তির উন্নতির ছোঁয়ায় এখন আর আপনাকে ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে রেলওয়ে টিকিট ক্রয় করার দরকার নেই। কেননা বর্তমানে শতভাগ টিকিট অনলাইন হতে ক্রয় করা যায় আপনারা জানেন না কিভাবে অনলাইনে টিকিট সংগ্রহ করতে হয় তাহলে আপনাদের জন্য বিশেষ নির্দেশনা এজে আজকের এই আর্টিকেলটি আপনার জন্যই।

আজকে আমরা নতুন পদ্ধতিতে অনলাইনে টিকিট কাটার নিয়ম আলোচনা করেছি 20 মার্চ 2022 তারিখ থেকে 25 শে মার্চ পর্যন্ত সারাদেশের সকল অনলাইন টিকিট কেনা বেচা বন্ধ ছিল। কেননা সার্ভার জটিলতার কারণে সিএনএসবিডি আমি সত্য তুলে নিয়ে shohoz.com এর সাথে নতুন চুক্তিতে স্বাক্ষরিত হয়েছে।

বাংলাদেশ রেলওয়ে এঅবস্থায় নতুন একটি ওয়েবসাইট চালু করা হয়েছে যে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনারা বর্তমানে রেলওয়ে টিকিট ক্রয় করতে পারবেন। আমরা আপনাদের এই নতুন ওয়েবসাইটের আলোকেই অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটার নিয়ম বিস্তারিতভাবে আলোচনা করেছি।

অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটার সময়

রেলওয়ে ভ্রমণ সবচেয়ে নিরাপদ ও সাশ্রয়ী পরিবহন হিসেবে ধরা হয় তাই দূরপাল্লার যেকোনো জায়গায় স্বাচ্ছন্দে চলাফেরা করার ক্ষেত্রে রেলপথ আপনার সবচেয়ে দরকারি বাহন। কিন্তু ট্রেনের টিকিট পাওয়া অত্যন্ত দুঃসাধ্য ব্যাপার কেননা লম্বা সময় ধরে একটি লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে টিকিট কাটা সত্যিই অসম্ভব একটি ব্যাপার।

তবে আপনাদের জন্য বিশেষ সেবা চালু করেছে বাংলাদেশ রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ আপনি এখন ঘরে বসে থেকে খুব সহজে আপনার মোবাইল থেকে ট্রেনের টিকিট বুকিং করতে পারবেন। একজন যাত্রী হিসেবে আপনি অবশ্যই চাইবেন সবার আগে অনলাইন থেকে ট্রেনের টিকেট কাটতে এ কারণে আপনি জানতে চেয়েছেন।

অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটার সময় আপনাদের উদ্দেশ্যে বলতে চাই যে অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটার সময় হল রাত-দিন 24 ঘন্টা। আপনি আজ থেকে আগামী 6 দিন পর্যন্ত ট্রেনের অগ্রিম টিকিট ক্রয় করতে পারবেন। নিচের অংশে আমরা ট্রেনের অগ্রিম টিকিট কেনার বিস্তারিত আলোচনা করেছি আশা করব তা আপনি দেখবেন এবং আপনার টিকিট ক্রয় করতে পারবেন।

অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটার নিয়ম

অনলাইনের মাধ্যমে ট্রেনের টিকিট কাটার জন্য shohoz.com করতে একটি নতুন ওয়েবসাইট ওয়েব ডেভেলপারদের তৈরি করার কার্যক্রম চলমান রয়েছে। আশা করা যাচ্ছে আগামী দুই মাসের মধ্যেই সম্পন্ন ওয়েবসাইটটি পরিপূর্ণতা লাভ করবে। তবে এই মুহূর্তে আপনি জানতে চেয়েছেন যে অনলাইনে কিভাবে ট্রেনের টিকিট কাটা সম্ভব প্রথমেই বলে রাখি অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটার ক্ষেত্রে আপনাকে প্রথমেই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। তাহলে চলুন জেনে নেয়া যাক কিভাবে রেজিস্ট্রেশন করবেন এবং তা পেমেন্ট করবেন তা সম্পর্কে জানি।

একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করুন

Screenshot-2022-03-28-at-2-23-26-PM

  • ট্রেনের টিকিট কাটার ক্ষেত্রে প্রথম আপনাকে একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে হবে তার জন্য প্রথমে আপনাকে ওয়েবসাইটে eticket.railway.gov.bd প্রবেশ করতে হবে।
  • অফিশিয়াল হোমপেজ আপনার সামনে প্রদর্শিত হবে সেখানে Register রেজিস্ট্রার অপশন এ ক্লিক করুন।
  • নির্ধারিত স্থানে আপনার মোবাইল নাম্বার অথবা ইমেইল আইডি লিখুন।
  • আপনার পুরো নাম জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর ইত্যাদি সকল তথ্য ফরম ও 8 অংকের পাসওয়ার্ড কনফার্ম করুন।
  • আপনার পোস্ট কোড এবং নিচের অংশে আপনার ঠিকানা লিখুন।
  • পরিশেষে সাইন আপ অপশন এ ক্লিক করুন আপনার রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন হয়েছে।

বিশেষ দ্রষ্টব্য: মনে রাখবেন রেজিস্ট্রেশন করার ক্ষেত্রে যে ফ্রম আপনার সামনে প্রদর্শিত হবে তা অবশ্যই ইংরেজিতে পূরণ করতে হবে।

মোবাইল ভেরিফাই করুন

এরপর আপনাকে মোবাইলে ছয় ডিজিটের একটি ভেরিফিকেশন কোড পাঠানো হবে। এই কোডটি আপনার ভেরিফিকেশন এর কাজে ব্যবহার করা হয়ে থাকে আপনার মোবাইলে আসা কোটি 45 সেকেন্ডের মধ্যে সব যথাযথভাবে লিখে কন্টিনুয়ে বাটনে ক্লিক করুন অতঃপর আপনার অ্যাকাউন্টটি প্রাথমিকভাবে চালু হয়ে গেছে।

একাউন্টে লগইন করুন

আপনার একাউন্ট খোলার সম্পূর্ণ হয়ে গেছে এবং আপনার ভেরিফিকেশন সম্পন্ন হয়েছে আপনার পার্সোনাল একটি প্রোফাইল এ লগইন করার ক্ষেত্রে আপনাকে মোবাইল নাম্বার অথবা ইমেইল অপশনে ক্লিক করুন নির্ধারিত স্থানে আপনার পাসওয়ার্ড লিখুন এবং লগইন অপশন এ ক্লিক করুন আপনি আপনার ওয়েবসাইটের ড্যাশবোর্ডে প্রবেশ করতে পারবেন।

Screenshot-2022-03-28-at-2-23-15-PM

Screenshot-2022-03-28-at-2-23-35-PM

Screenshot-2022-03-28-at-2-23-54-PM


ট্রেন সার্চ করুন

আপনার প্রোফাইলটি পুরোপুরি আপডেট হয়ে গিয়েছে এবার হোমে ফিরে আসলে আপনি কোন স্টেশন থেকে রওনা হবেন এবং কোন স্টেশনে যাত্রা শেষ করবেন সেই অনুসারে ট্রেন খোঁজ করতে পারেন।

From : আপনি যে স্টেশন থেকে ট্রেনে উঠবে তা বাছাই করুন এবং TO তে আপনি যে স্টেশনে নামবেন তা বাছাই করুন।

Date of Journey : এই অপশনে আপনি যেদিন ট্রেনে ভ্রমণ করতে চান সে দিনটি নির্ধারণ করুন মাস বছর ও দিন নির্বাচন করে যাত্রার দিন ধার্য করেন।

Choose Class এখানে উপরের মত অপশনগুলো পূরণ করে হলুদ রংয়ের Find বাটনে ক্লিক করুন। এরপর আপনার বাছাই করা তারিখের সকল ট্রেনগুলো দেখানো হবে।

এখান থেকে ট্রেন ছাড়ার সময় অনুসারে আপনার পছন্দ মত ট্রেন থেকে টিকেট কাটার জন্য সিলেক্ট করুন।

ট্রেন ও Seat বাছাই করুন

আপনার যাত্রার সময় ও আসন এর ধরন অনুসারে পছন্দমত ট্রেন ও সিট বাছাই করতে হবে। এজন্য আপনার পছন্দের ট্রেনের আসন খালি আছে কিনা তা ভিউ সের্চ বাটনে ক্লিক করলে দেখতে পাবেন এবং যদি তা খালি থাকে তাহলে তা বুকিং করুন। শিশুদের টিকিটের মূল্য পরের ধাপে সমন্বয় করা হবে এরপর কন্টিনুয়ে বাটনে ক্লিক করে আপনাকে পরবর্তী ধাপে যেতে হবে।

Screenshot-2022-03-28-at-2-23-44-PM

যাত্রীর তথ্য দিন

এই অংশে যতগুলো সিট বুক করেছেন তার যাত্রীদের নাম এবং শিশু বয়স্ক কিনা তা নির্বাচন করুন 3 থেকে 12 বছর বয়সী শিশু থাকলে প্যাসেঞ্জার টাইপ চাইল্ড নির্বাচন করবেন সিলেক্ট করলে তার ভাড়া সংক্রিয়ভাবে সমন্বয় করে কমানো হবে।

টিকিটের মূল্য পরিশোধ

এখানে টিকিটের মোট ভাড়ার পরিমাণ ব্যাক বেঞ্চার ও মোট খরচের পরিমাণ দেখানো হবে টিকিটের মূল্য পরিশোধ করার জন্য যে কোন মোবাইল ব্যাংকিং সেবা বিকাশ রকেট নগদ অথবা ডেবিট ক্রেডিট কার্ড অপশন বাছাই করেন আপনি তো কনফার্ম করতে পারেন।

মোবাইলে ট্রেনের টিকেট কাটার নিয়ম

আপনারা যারা মোবাইল দিয়ে ঘরে বসে থেকে অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটার জন্য আগ্রহ প্রকাশ করেছেন তারা মোবাইলে ট্রেনের টিকিট কাটার উদ্দেশ্যে আপনার মোবাইলের গুগল ক্রোম ব্রাউজার ওপেন করুন এবং এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করুন এবং ওপরের দেওয়ার নির্দেশনা অনুসরণ করলে খুব সহজে ট্রেনের টিকিট কাটতে পারবেন।

পাশাপাশি কয়েকটি অফিশিয়াল মোবাইল এপ্লিকেশন গুগল প্লে স্টোরে প্রকাশ করা হয়েছে আপনি চাইলে মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ইন্সটল করে সেখান থেকে খুব সহজেই অনলাইনে মোবাইলের মাধ্যমে ট্রেনের টিকেট কাটতে পারবেন।

বিকাশে ট্রেনের টিকেট কাটার নিয়ম

জনপ্রিয় মোবাইল ব্যাংকিং সেবা বিকাশ সম্প্রতি তাদের গ্রাহকদের সুবিধার্থে সরাসরি বিকাশ অ্যাপ ব্যবহার করে ট্রেনের টিকিট কাটার সুবিধা ব্যবস্থা চালু করেছে তবে এটি সরাসরি ওয়েবসাইট থেকে কাটার মত একই হবে ওয়েবসাইট থেকে ট্রেনের টিকিট কাটার পদ্ধতি অনুসরণ করে আপনি ট্রেনের টিকিট মূল্য নির্ধারণ করে এখান থেকে তা জমা দিতে পারবেন।

ট্রেনের টিকিট ফেরত দেওয়ার নিয়ম

অনেকে ট্রেনের টিকিট 4 থেকে 5 দিন আগে কিনে রাখেন বিশেষ সুবিধা পাওয়ার জন্য কোন অনাকাঙ্খিত কারণে আপনার যাত্রা যদি বন্ধ হয়ে যায় এ অবস্থায় আপনি ট্রেনের টিকিট ফেরত দেওয়ার সুযোগ পাবেন কেননা বাংলাদেশ রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ যাত্রীদের এই বিশেষ সুযোগ দিয়েছেন তবে ট্রেনের টিকিট ফেরত দেওয়ার ক্ষেত্রে বিশেষ কিছু শর্তাবলী রয়েছে যা আপনাকে মেনে চলতে হবে।

  • যাত্রা শুরুর 48 ঘণ্টা আগে টিকিট ফেরত দেওয়ার ক্ষেত্রে এসি ক্লাসের জন্য 40 টাকা এসি প্রথম শ্রেণীর জন্য 30 টাকা এবং অন্যান্য শ্রেণীর জন্য 25 টাকা পরিষেবা চার্জ কাটা হবে।
  • 48 ঘণ্টার কম এবং 24 ঘন্টার বেশি এমন সময় পর যদি আপনি টিকিট ফেরত দিতে চান তাহলে আপনার ভাড়ার 25 পার্সেন্ট কাটা হবে।
  • 24 ঘন্টার কম এবং 12 ঘণ্টার বেশি হলে ভাড়া 50 পার্সেন্ট কাটা হবে।
  • 12 ঘণ্টার কম এবং ছয় ঘণ্টার বেশি ভাড়ার ক্ষেত্রে 75% ভাড়া কর্তন করা হবে।
  • অনলাইনে টিকিট ক্রয় করার সার্ভিস চার্জ অফেরৎযোগ্য।

তথ্যগুলো যদি আপনি যথাযথভাবে অনুসরণ করেন তাহলে সহজেই অনলাইন থেকে ট্রেনের টিকিট ক্রয় করতে পারবেন অনলাইনে ট্রেনের টিকিট করার করার ক্ষেত্রে আপনার কোন ধরনের সমস্যা হয়ে থাকলে নিচের কমেন্ট বক্সে আপনি তাও আমাদের জানান আমরা আপনার সমস্যার সমাধান করার চেষ্টা করব।