অনলাইনে ই পাসপোর্ট রিনিউ করার নিয়ম ২০২২

2020 সালের শুরু থেকে বাংলাদেশে সর্বপ্রথম অনলাইনের মাধ্যমে পাসপোর্ট করার সূত্রপাত হয় সাধারণত ই-পাসপোর্ট নামে পরিচিত। ই-পাসপোর্ট এমন একটি ইলেকট্রনিক চিপ এর মাধ্যমে পাসপোর্ট হোল্ডার এর সকল তথ্য সংরক্ষিত থাকে। ই-পাসপোর্ট সেবার মাধ্যমে ইমিগ্রেশন মাধ্যমে প্রবেশ করতে পারবেন।

আপনাকে দীর্ঘ সময় লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে হবে না আপনি ঘরে বসে থেকেই অনলাইনের মাধ্যমে আবেদন সম্পূর্ণ করতে পারবেন। তবে পাসপোর্ট করার পর তা বিভিন্ন মেয়াদে করা হয় যেমন 1 বছর 2 বছর 4 বছর এসকল মেয়াদে পাসপোর্ট করা হয় এবং একটি নির্দিষ্ট সময় পর তা আপনাকে পুনরায় রিনিউ করা লাগে। অর্থাৎ আপনার পাসপোর্ট এর মেয়াদ পূর্ণ পুনরায় বাড়ানো লাগে এ পদ্ধতিকে পাসপোর্ট রিনিউ বলা হয়। আজকের আলোচনার অংশ আমরা আপনাদের দেখাবো কিভাবে পাসপোর্ট রিনিউ করবেন তার বিস্তারিত তথ্য।

পাসপোর্ট রিনিউ করার নিয়ম

বাংলাদেশ সরকার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে এগোচ্ছে। এ অবস্থায় বর্তমানে যেহেতু বাংলাদেশের সব জেলায় পাসপোর্ট অফিস গুলোতে ই-পাসপোর্ট কার্যক্রম চালু হয়েছে তাই আপনাকে এখন এমআরপি পাসপোর্ট নবায়ন করতে ই-পাসপোর্ট নিতে হবে। আপনি নিজেই অনলাইনে বাংলাদেশ পাসপোর্ট রিনিউ করার ফরম পূরণ করতে পারবেন।Screenshot-2022-03-17-at-2-08-41-PM


Screenshot-2022-03-17-at-2-08-48-PM

তবে এক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই বিশেষ নির্দেশনা মেনে চলতে হবে। আপনি যদি দেশের বাইরে থাকেন আপনি পাসপোর্ট এর জন্য অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন না। আপনি শুধুমাত্র এমআরপি রিনিউ করার জন্য ফরম পূরণ করে আপনার অবস্থানরত দেশের এম্বাসি বা হাইকমিশন থেকে আপনার পাসপোর্ট রিনিউ করতে পারবেন।

অনলাইনে ই পাসপোর্ট রিনিউ করার নিয়মাবলী

  • অনলাইনে পাসপোর্ট রিনিউ করার ক্ষেত্রে প্রথমে আপনাকে আপনার প্রোফাইলে প্রবেশ করতে হবে।
  • হাতের বাম দিকে আইডি ডকুমেন্টস অপশনে ক্লিক করুন যেখানে আপনার পূর্ববর্তী এমআরপি পাসপোর্ট অপশনটি সিলেক্ট করবেন এবং বিস্তারিত তথ্য প্রদান করুন।
  • ID Documents অপশনে আসার পর, Yes, I have a Machine Readable Passport (MRP) এই অপশনটি সিলেক্ট করুন।
  • পরবর্তী ধাপে আপনি যে কারণে পাসপোর্ট রিনিউ করতে চাচ্ছেন তা উল্লেখ করুন আপনার পাসপোর্ট এর মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে থাকে তাহলে এক্সপার্ট অপশন টি ক্লিক করুন, যদি তা হারিয়ে ফেলেন তাহলে লাস্ট অপশন এ ক্লিক করুন, যদি কোন তথ্য পরিবর্তন করতে চান তাহলে ডাটা চেঞ্জ অপশন এ ক্লিক করুন।
  • নির্দিষ্ট স্থানে আপনার পাসপোর্ট নম্বর টি লিখুন। যেমন (EG45682354)
  • আপনি পাসপোর্ট যে সময়ে সংগ্রহ করেছিলেন সে তারিখ লিখুন ও আপনার পাসপোর্ট এর মেয়াদ উত্তীর্ণের তারিখ টি ধারাবাহিকভাবে লিখুন।
  • পরবর্তী যেসকল অপশনগুলো আপনার সামনে প্রদর্শিত হবে তা ই-পাসপোর্ট আবেদন এর মতোই নির্দ্বিধায় সম্পন্ন করুন এবং আপনার আবেদন টিপস সাবমিট করুন। আপনি আপনার পিতা-মাতার তথ্য স্বামী-স্ত্রী তথ্য পাসপোর্ট ডেলিভারি সিলেট করে আবেদনটি সম্পন্ন করতে পারবেন।

পাসপোর্ট রিনিউ করার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

আপনি যদি পাসপোর্ট রিনিউ করতে চান তাহলে নিকটস্থ ই পাসপোর্ট অফিস কার্যালয়ে যোগাযোগ করুন তবে অফিসে যোগাযোগ করার ক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই বেশ কিছু কাগজপত্র পাসপোর্ট অফিসের সঙ্গে করে নিয়ে যেতে হবে যা নিচের অংশে আলোচনা করা হয়েছে।

  • আবেদনপত্রের সারাংশে প্রিন্ট কপি।
  • ই পাসপোর্ট অফিস থেকে শনাক্ত করার জন্য আপনার সঙ্গে জাতীয় পরিচয় পত্র অথবা অনলাইন জন্ম নিবন্ধন সনদ সঙ্গে নিয়ে যেতে হবে।
  • ব্যাংকে টাকা জমা দেওয়ার রশিদ অর্থাৎ চালান মানিঅর্ডার ব্যাংক সার্টিফাইড চেক ইত্যাদি।
  • পূর্বের ব্যবহৃত পাসপোর্ট এর ডাটাবেজের প্রিন্ট কপি।
  • সরকারি চাকরিজীবীদের ক্ষেত্রে গো অ্যান্ড এনওসি।
  • তথ্য সংশোধনের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র যেমন আপনার নামে যদি কোন ভুল হয়ে থাকে তাহলে আপনি আপনার এসএসসি-এইচএসসির সনদপত্র সঙ্গে নিয়ে যেতে পারেন যা আপনার নামের সঠিক বানান প্রদানে সহায়তা করবে।
  • রেজিস্ট্রেশন ফরম বা আবেদনপত্রের প্রিন্ট কপি।

পাসপোর্ট রিনিউ ফরম জমা দেয়ার নিদের্শনা

  • অনলাইনে পাসপোর্ট রিনিউ করার জন্য আবেদন করার পর আবেদনের কঁপি এ ফোর সাইজ পেজে অভয় পৃষ্ঠায় প্রিন্ট আউট করতে হবে।
  • নিকটস্থ ব্যাংকের সাথে যোগাযোগ করে চালান ফরম এর মাধ্যমে রিনিউ ফি প্রদান করুন।
  • পাসপোর্ট রিনিউ করতে যে সকল কাগজপত্র প্রয়োজন তার ফটো কপি সংযুক্ত করতে হবে।
  • পাসপোর্ট রি ইস্যু কারণে মূল পাসপোর্ট প্রদর্শন করতে হবে।
  • আপনার পাসপোর্ট যদি হারিয়ে যায় তাহলে মূল জিডির কপি দাখিল করতে হবে।
  • আপনার পাসপোর্ট যদি হারিয়ে যায় অথবা চুরি হয়ে যায় তাহলে নিকটস্থ থানায় জিডি করতে হবে পুরাতন পাসপোর্ট এর ফটোকপি কপিসহ আবেদনপত্রসহ পাসপোর্ট অফিসে যোগাযোগ করতে হবে।

পাসপোর্ট রিনিউ ফি কত?

বর্তমানে বাংলাদেশের প্রায় সব জেলাতেই পাসপোর্টের সুবিধা রয়েছে যার কারণে আপনি অনলাইনের মাধ্যমে পাসপোর্ট করতে পারবেন। আপনি যদি ই-পাসপোর্ট করতে আগ্রহী হন তাহলে অবশ্যই জানতে চাইবেন পাসপোর্ট রিনিউ করতে কত টাকা প্রয়োজন। তাদের উদ্দেশ্যে আমরা এখানে তার সংক্ষিপ্ত তালিকা প্রকাশ করলাম।

Screenshot-2022-03-17-at-2-07-52-PM

আপনাদের মাঝে অনেকে জানতে চেয়েছেন যে পাসপোর্ট রিনিউ করতে কতদিন সময় লাগে তাদের উদ্দেশ্যে বলতে চাই যে আপনি যদি অনলাইনে পাসপোর্ট এর জন্য আবেদন করে থাকেন তাহলে 15 থেকে 20 দিনের মধ্যেই আপনাকে নিকটস্থ পাসপোর্ট অফিস থেকে যোগাযোগ করতে বলা হবে এবং আপনি যথাসময়ে তাদের সাথে সকল কাগজপত্র নিয়ে অফিসে উপস্থিত হতে হবে।

পাসপোর্ট সংক্রান্ত যেকোন সমস্যার সমাধানের জন্য আমাদের ওয়েবসাইটে নিয়মিত ভিজিট করুন আমরা এখানে যেকোন ধরণের সমস্যার সমাধান করে থাকে আমাদের পাশে থেকে এতক্ষণ সময় দেওয়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।