iPhone SE মোবাইলের দাম ও স্পেসিফিকেশন

জনপ্রিয় মোবাইল কোম্পানি গত 22 ফেব্রুয়ারি তাদের নতুন ইভেন্টের ডাক দিয়েছিলেন। উক্ত ইভেন্টে সকলে যখন সিরিজের নতুন ল্যাপটপের আশায় বসে ছিল তখন তাদের হতাশ করে অ্যাপেল ঘোষণা করেন যে এবার তারা কম দামে একটি হ্যান্ডসেট বাজারে প্রকাশ করতে চলেছে।

অ্যাপলের আইফোন এসই মোবাইলটিতে রয়েছে পাঁচটি সুবিধা তাছাড়া বেশ কিছু আকর্ষণীয় ফিচার রয়েছে যা গ্রাহকদের আকর্ষিত করবে বলে ধারণা করা হচ্ছে চলুন জেনে নেওয়া যাক অ্যাপেলের এ নতুন ফোনটি সম্পর্কে বিস্তারিত সকল তথ্য।

iPhone SE মোবাইলের স্পেসিফিকেশন

আলোচনার শুরুতে আমরা এই ফোনের মডেল সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য উপস্থাপন করবো এই ইভেন্টে মোড়ক উন্মোচন করেন অ্যাপল স্প্রিং ইভেন্টে নতুন আইফোন এসই ঘোষণা করেছে অ্যাপল। শক্তিশালী এ১৫ বায়োনিক চিপ, ৫জি সাপোর্ট, ভালো ব্যাটারি লাইফ ও স্থায়িত্ব, ইত্যাদি হলো নতুন আইফোন এর উল্লেখযোগ্য কিছু ফিচার। নতুন ক্যামেরা সিস্টেমে স্মার্ট এইচডিআর ৪, ফটোগ্রাফিক স্টাইলস ও ডিপ ফিউশন যুক্ত হয়েছে বাজেট আইফোনটিতে।

Screenshot-2022-03-10-at-9-03-08-AM

ডিজাইন ও ডিসপ্লে

আগের অন্যান্য আইফোনের মতন ডিজাইনের দিকে কোনো পরিবর্তন না এনে এই ফোনটি বাজারে প্রকাশ করা হয়েছে আইফোন 13 13 Pro এই মডেলের সাথে নতুন আইফোন SE একই অ্যালুমিনিয়াম ও গ্লাস ডিজাইন ব্যবহার করা হয়েছে নতুন আইফোনে সম্পূর্ণ মিল রয়েছে।

এছাড়া ডিভাইসটি আইপি৬৭ রেটেড ব্যবহার করার সুবাদে ধুলাবালি ও পানি থেকে ডিভাইসটিকে নিরাপদ রাখবেন সামান্য পানির ঝাপটা চারদিকে কোনভাবে ড্যামেজ করতে পারবে না।

2022 সালে প্রকাশিত আইফোন এসই এই মোবাইল বরাবরের মতোই হোম ও Touch বাটন ব্যবহার করা হয়েছে অর্থাৎ ডিজাইনের ক্ষেত্রে নতুন কোনো পরিবর্তন আনা হয়নি উল্লেখ্যযোগ্য কোনো পরিবর্তন আসেনি। পূর্ববর্তী ৪.৭ইঞ্চি রেটিনা ডিসপ্লে থাকছে আইফোন এসই ২০২২ ফোনটিতে। অর্থাৎ আমরা নির্দ্বিধায় বলতে পারি যে পুরোনো আইফোন মডেল এর প্রতিটি পণ্যের সাথে এই ফলটির সামঞ্জস্য রয়েছে অর্থাৎ কোন ধরনের অমিল খুঁজে পাওয়া যাবে না ডিজাইন ও ডিসপ্লে।

চিপসেট

আইফোনের এই নতুন মোবাইলটির সবচেয়ে আকর্ষণীয় দিক হলো তা হলো ফোনটির চিপসেট খুবই উন্নত মানের চিপসেট ব্যবহার করা হয়েছে কোনটিতে যার কারণে ফোনটি ব্যবহার করে আপনি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করবেন। নতুন আইফোন এসই এর হাইলাইট ফিচার হলো এতে ব্যবহৃত হওয়া অ্যাপল এ১৫ বায়োনিক চিপ। অ্যাপলের হাজার ডলার ফ্ল্যাগশিপে ব্যবহৃত হওয়া এই চিপসেট এবার বাজেট আইফোনেও দেখা যাবে।

চিপসেট দেখে বুঝতে পারছেন যে অন্যান্য আইফোনের যে সকল চিপসেট ব্যবহার করা হয় তা এই ফোনটিতে ব্যবহার করা হচ্ছে অর্ধেক দাম হওয়া সত্ত্বেও অ্যাপেল কোম্পানির তাদের নিজেদের মোবাইলের ভারত রক্ষা করার জন্যই এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।

এ১৫ বায়োনিক এই চিপস সেটটি ব্যবহার করার কল্যাণে আপনি খুব সহজেই যেকোন ভালো মানের মোবাইল গেম অ্যাপ্লিকেশন ভিডিও এডিটিং খুব সহজেই করতে পারবেন পাশাপাশি আইওএস ১৫ এর সাথে ইন্ট্রিগ্রেশন এর সুবাদে ব্যাটারি লাইফে উন্নতি দেখা যাবে আইফোন এসই ২০২২ ফোনটিতে। তাছাড়া ব্যাটারি ব্যাকআপ এর দিকে লক্ষ্য রেখে বিশেষ ফাস্ট চার্জিং ব্যবহার করা হয়েছে।

ক্যামেরা

আইফোনের এই নতুন ডিভাইসটিতে ক্যামেরার দিকে বিশেষ নজরদারি করা হয়েছে ফোনটিতে চিপসেট ভালো মানের হওয়ার কারণে ক্যামেরার দিকে বিশেষ সুবিধা পেয়ে থাকবেন। ফোনটির পেছনের ব্যাক ক্যামেরা তে ব্যবহার করা হয়েছে 12 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সাথে রয়েছে এফ১.৮ এপার্চারের ক্যামেরা দ্বারা স্মার্ট এইচডিআর ৪, ফটোগ্রাফিক স্টাইলস, ডিপ ফিউশন ও পোর্ট্রেইট মোড এর মত অসাধারণ সব ক্যামেরা ফিচার উপভোগ করা যাবে।

অপরদিকে মোবাইলটির সামনে সেলফি ক্যামেরা নতে 7 মেগাপিক্সেলের এইচডি ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে যার কারণে আপনি নিমেষেই দারুণ সেলফি তুলতে পারবেন।

৫জি

উন্নত বিশ্বে এবছরের 5জি সেবা চালু হয়ে গেছে যার কারণে আইফোন তাদের ডিভাইসগুলোতে পরিষেবা চালু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে এ লক্ষ্যেই নতুন মডেলের এই ফোনটিতে ফাইভ জি মোবাইল নেটওয়ার্ক ব্যবহারের সুবিধা দেওয়া হয়েছে।

বিশ্বের ৭০টি দেশের ২০০টি ক্যারিয়ার এই বছর ৫জি সুবিধা আসতে চলেছে। আইফোন এসই ২০২২ সুলভ মূল্যে পাওয়া যাবে বলে ৫জি এর প্রসারে সাহায্য করবে ফোনটি। ফাইভ-জি নেটওয়ার্ক ব্যবহার করার কারণে ফোনটি ইন্টারনেট ব্রাউজিং ও ডাউনলোডিং অ্যাপস স্বচ্ছভাবে কাজ করবে দ্রুতগতির ইন্টারনেট ব্যবহারের জন্য ফোনটিক মুখ্য ভূমিকা পালন করবে।

iPhone SE মোবাইলের দাম

অ্যাপলের ইভেন্টের এই ডিভাইসটির মোড়ক উম্মোচন এরশাদের সাথে সারা বিশ্বের আইফোন ব্যবহারকারীদের মনে সাড়া দিয়েছে তারা এই ফোনটি সম্পর্কে জানতে অনেক আগ্রহ প্রকাশ করেছে এ লক্ষ্যে অ্যাপেল মোবাইল কোম্পানি তাদের মোবাইল ফোনের একটি নির্দিষ্ট দাম নির্ধারণ করেছে ফোনটি বাজারে প্রকাশ করেছে প্রথমদিকে আমেরিকাতেও ভর্তি করা হলেও ধাপে ধাপে এশিয়া ও ইউরোপের অন্যান্য দেশ অতিশীঘ্রই লঞ্চ করা হবে।

আইফোন এসই পাওয়া যাবে ৬৪জিবি, ১২৮জিবি ও ২৫৬জিবি মডেল ভ্যারিয়েন্টে। মিডনাইট,স্টারলাইট প্রোডাক্ট রেড রংয়ে পাওয়া যাবে আইফোন এসই। ৪২৯ডলার গুণতে হবে হবে আইফোন এসই কিনতে হলে। তবে অনেকের মতে এই ফোনটির দাম 300 থেকে 350 ডলার পর্যন্ত হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে যদিও অ্যাপেল কোম্পানি দামটা এখন পর্যন্ত নির্ধারণ করার নেই।

iPhone SE বাংলাদেশের দাম

ইভেন্ট এর মাধ্যমে ঘোষণা করা হয়েছে ফোনটি অতি শীঘ্রই আমেরিকার বাজারে প্রকাশ করা হবে পাশাপাশি এশিয়া ও ইউরোপের ধাপে ধাপে প্রকাশ করা হবে। বাংলাদেশ জুন মাসের মধ্যেই ফল প্রকাশ করা হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে একজন বাংলাদেশী হিসেবে আপনি অবশ্যই পারবেন ফোনটি কিনতে এবং এর দাম সম্পর্কে জানতে।  আপনাদের উদ্দেশ্যে বলতে চাই যে যেহেতু অ্যাপল কোম্পানির 350 ডলার নির্ধারণ করা হয়েছে আমরা ধারণা করছি ফোনটির দাম 1 লাখের মতো হতে পারে তবে অনেকের মতে এই ফোনটির দাম 66 হাজার টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

অ্যাপেল মোবাইল কোম্পানি তাদের ডিভাইসের দিক দিয়ে সবচেয়ে বেস্ট বলে মনে করা হয় তাই আপনি নির্দ্বিধায় এই কোম্পানির যে কোনো ডিভাইস ব্যবহার করতে পারেন আমরা আশা করবো অতি শীঘ্রই আমাদের দেশে প্রকাশ হবে এবং অপটিকস দেশের বিভিন্ন কাস্টমার কেয়ার থেকে ফোনটি ক্রয় করতে পারবেন।