ডিজেবল হওয়া ফেসবুক আইডি ফিরিয়ে আনার উপায় (নষ্ট ফেসবুক ঠিক করার উপায়)

বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ও বেশি ব্যবহারকারী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ওয়েবসাইট ফেসবুক। সারাদেশের বিভিন্ন প্রান্তের মানুষের সাথে যোগাযোগ স্থাপনে এই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বিরাট ভূমিকা পালন করে থাকে। আপনি যদি একজন ফেসবুক ব্যবহারকারী হয়ে থাকেন তাহলে আপনার একটি নির্দিষ্ট প্রোফাইল রয়েছে।

তবে অনিবার্য কারণবশত আপনার এই আইডি নষ্ট হয়ে যেতে পারে বা ডিজেবল হয়ে যেতে পারে। মূলত একজন ফেসবুক ব্যবহারকারী যখন ফেসবুকের যে বিধিনিষেধ রয়েছে তা লংঘন করে ফেসবুকে ঐ সকল কার্যক্রম করে থাকে তখন ফেসবুক আইডি ডিজেবল করে দেওয়া হয়।

তবে আপনি কি জানেন এই ডিজেবল হওয়া ফেসবুক আইডি রিকভার করা যায়। যদি না জেনে থাকেন তাহলে আমাদের আজকের এই আলোচনাটি শুধুমাত্র আপনার জন্য। এখানে আমরা আজকে আপনাদের দেখাব কিভাবে ডিজেবল হওয়া ফেসবুক আইডি ফিরিয়ে আনা যায় এবং আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে কি কি কারণে হতে পারে তার বিস্তারিত সকল তথ্য।

ফেসবুক আইডি ডিজেবল কেন হয়?

কোন বিষয়ের সমাধান পাওয়ার পূর্বে আপনাকে অবশ্যই সে সমস্যাটি কেন হয় তা সম্পর্কে জানা অত্যন্ত জরুরি। আপনার ফেসবুক আইডি ডিসেবল হওয়ার কারণ সম্পর্কে বিস্তারিত এখানে আলোচনা করা হয়েছে।

প্রথমে আমরা আপনাদের বলতে চাই যে আপনি যদি ফেসবুক অথরিটির বিধিনিষেধের বাইরে কোনো কার্যক্রম করে থাকেন তাহলে আপনার ফেসবুক আইডিটি ডিজেবল করে দেওয়া হবে। চলুন জেনে নেওয়া যাক ফেসবুক কর্তৃপক্ষের দেওয়া বিধি নিষেধ গুলো কি কি।

সহিংসতা ও অপরাধমূলক আচরণ

হুমকি ও সহিংসতামূলক কোন ধরনের কনটেন্ট আপনার ফেসবুক থেকে শেয়ার করা হলে আপনার ফেসবুক আইডিটি ডিজেবল করে দেওয়া হতে পারে। কেননা ফেসবুক কর্তৃপক্ষ সকল ধরনের অপরাধ মূলক আচরণ বন্ধ করার চেষ্টা করে ফেসবুক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হলেও এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে কোন ধরনের অপরাধমূলক কাজ সংঘটিত হোক তা যেন না হয় এই দিকে দৃষ্টিপাত করা হয়েছে।

আপনি যদি আপনার ফেসবুক প্রোফাইল অথবা পেজ থেকে নিচে দেওয়া কাজগুলো করে থাকেন তাহলে আপনার ফেসবুক আইডি অবশ্যই ডিজেবল হয়ে যাবে।

  • সন্ত্রাসী কার্যকলাপ
  • দলবদ্ধ ঘৃণা
  • মানব পাচার
  • দলবদ্ধ সহিংসতা ও অপরাধমূলক কার্যকলাপ
  • রেগুলেটেড পণ্য

অতিরিক্ত ফেসবুক ব্যবহার

অতিরিক্ত ফেসবুক এক্টিভিটিস এর কারনে আপনার ফেসবুক আইডিটা ডিজেবল হয়ে যেতে পারে। কেননা একজন মানুষের পক্ষে যেসকল কাজগুলো করা সম্ভব আপনি যদি ফেসবুকের মাধ্যমে সেগুলো করেন তাহলে আপনার ফেসবুক আইডি নিরাপদ।

কিন্তু যদি আপনি প্রয়োজনের বাইরে অতিরিক্ত ফেসবুক ব্যবহার করে থাকেন তাহলে সেক্ষেত্রে আপনার ফেসবুক আইডিটি সমস্যা হতে পারে। অতিরিক্ত ফেসবুক ব্যবহার করতে হয় আমরা ফেসবুকের মাধ্যমে যে টেক্সট মেসেজগুলো পাঠাই আপনি যদি একই মেসেজ আপনার বন্ধু তালিকার বেশির ভাগ মানুষকে প্রেরণ করে থাকেন তাহলে এক্ষেত্রে আপনার সমস্যা হয়ে থাকবে।

পাশাপাশি আপনি যদি আপনার বন্ধু তালিকার সকলের পোস্টে লাইক ও কমেন্ট একনাগাড়ে করতে থাকেন এক্ষেত্রে ফেসবুক আপনাকে রোবট হিসেবে গণ্য করবে এবং আপনার ফেসবুক একাউন্ট ডিজেবল করে দেবে।

একই ব্রাউজার ও লোকেশন থেকে ফেসবুক ব্যবহার

ব্যবহারের সুবিধার্থে আমরা দুইটি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করতে চাই এজন্য আমরা একটি ব্রাউজার দিয়ে এবং একই স্থান থেকে ফেসবুক চালিয়ে থাকে। আপনি কি জানেন আপনি যদি একই ব্রাউজারে লোকেশন থেকে ফেসবুক ব্যবহার করে থাকেন তাহলে আপনার ফেসবুক আইডি ডিজেবল হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

কেননা ফেসবুক কর্তৃপক্ষ একজন ব্যক্তির জন্য শুধুমাত্র একটি ফেসবুক আইডি ব্যবহার করার সুযোগ দিয়েছে কিন্তু আপনি তা অমান্য করে দুইটি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করছেন এবং ফেসবুক কর্তৃপক্ষ যদি আপনার ব্রাউজার ও লোকেশন ট্র্যাক করে বুঝতে পারে এক্ষেত্রে আপনার ফেসবুক একাউন্ট ডিজেবল করে দেওয়া হবে।

অন্যান্য কারণ

13 বছরের কম বয়সের ফেসবুক কর্তৃপক্ষ কোনো ব্যক্তিকে একাউন্ট খুলতে অনুমতি প্রদান করেনা তবুও আপনি যদি নিজের পরিচয় গোপন করে ফেসবুক প্রোফাইল খুলে থাকেন এক্ষেত্রে আপনার ফেসবুক আইডি ডিজেবল হয়ে যেতে পারে।

ফেসবুক কর্তৃপক্ষ মিথ্যা প্রচারণা বন্ধ করার লক্ষ্যে দীর্ঘদিন যাবত কাজ করে চলেছে তাই আপনার ফেসবুক প্রোফাইল অথবা পেজ থেকে যদি মিথ্যা প্রচারণা চালানো হয় তবে এক্ষেত্রে আপনার ফেসবুক আইডি অথবা পেজটি ডিজেবল হয়ে যেতে পারে।

ব্যান বা ডিজেবল হওয়া ফেসবুক আইডি ফিরিয়ে আনার উপায়

উপরের দেওয়া কারণগুলোর ক্ষেত্রে আপনার ফেসবুক আইডিটি ব্যায়াম বা ডিজেবল হলে তা ফিরিয়ে আনার জন্য আমাদের দেওয়া নিচের নির্দেশনা অনুসরন করুন।

  • প্রথমে আপনাকে আপনার একাউন্টটি ফিরিয়ে আনার জন্য ফেসবুক কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ স্থাপন করতে হবে তাই নিচের দেওয়া লিংকে ক্লিক করুন https://www.facebook.com/help/contact/logout?id=260749603972907
  • পরবর্তী ধাপে আপনি যে মোবাইল নাম্বার অথবা ইমেইল আইডি দিয়ে ফেসবুক একাউন্ট খুলেছেন তা লিখুন।
  • আপনি যে নাম ব্যবহার করে ফেসবুক প্রোফাইল তৈরি করেছেন তা প্রদান করুন।
  • জাতীয় পরিচয় পত্র পাওয়া ব্যক্তির আইডি কার্ড আপলোড করুন আর আপনার যদি জাতীয় পরিচয় পত্র না হয়ে থাকে আপনি যদি ছাত্র হয়ে থাকেন তাহলে আপনার প্রতিষ্ঠান কলেজ আইডি কার্ড আপলোড করুন।
  • সাবমিট করুন ফেসবুক কর্তৃপক্ষ 72 ঘন্টার মধ্যে আপনার সাথে ইমেইলের মাধ্যমে যোগাযোগ করবে। তাই আপনি আপনার ইমেইল আইডিটি সক্রিয় রাখুন এবং ইনবক্স চেক করুন।
  • আপনার দেওয়া তথ্যগুলো যদি সঠিক হয় এবং জাতীয় পরিচয় পত্রের সাথে ফেসবুকে দেওয়া জন্ম তারিখ ও নাম মিলে যায় তাহলে আপনার ফেসবুক আইডিটি ঠিক হয়ে যাবে।