যে পদ্ধতিতে হবে ২০২২ আইপিএল

আইপিএলের বিগত কয়েকটি আসরে আট দল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছে। এতে সময় লেগেছে দেড় থেকে দুই মাস। এবার দলের সংখ্যা বেড়ে ১০টি হয়েছে। তবে এক মাসেই শেষ হয়ে যাবে এই টুর্নামেন্ট। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী ২৭ মার্চ পর্দা উঠবে ২০২২ আইপিএলের।২৭ বা ২৮ মে ফাইনাল দিয়ে পর্দা নামবে এই প্রতিযোগিতার।

 

আট দলের আইপিএলে মোট ৬০টি ম্যাচ হতো। এই বছর দুটি দল বাড়ায় শুধু লিগ পর্বেই হবে ৭০টি ম্যাচ।তা সত্ত্বেও টুর্নামেন্টের দিন কমিয়ে আনছে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিসিআই)।২০১১ সালে যে নিয়মে হয়েছিল, এবারের আইপিএল হবে সেই পদ্ধতিতে। ১০ দল দুটি গ্রুপে ভাগ হয়ে খেলবে।অর্থাৎ প্রতি গ্রুপে পাঁচটি করে দল থাকবে।

 

প্রতিটি দল নিজেদের গ্রুপের বাকি চার দলের সঙ্গে দুইবার করে মুখোমুখি হবে।এছাড়া অন্য গ্রুপের দলগুলোর সঙ্গে একবার করে খেলবে তারা।ফলে এই মৌসুমে দলের সংখ্যা বাড়লেও লিগ পর্বে প্রত্যেক দল আগের মতো ১৪টি করেই ম্যাচ খেলবে।

 

গ্রুপপর্বের ম্যাচগুলো হবে মহারাষ্ট্রে।দ্য হিন্দুর এক প্রতিবেদনে বলা হয়, মোট ছয়টি ভেন্যুতে খেলা হবে।মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে ও ব্র্যাবোর্ন স্টেডিয়াম, নভি মুম্বাইয়ের ডিওয়াই পাতিল স্টেডিয়াম ও জিয়ো স্টেডিয়াম এবং পুণের মহারাষ্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে অধিকাংশ ম্যাচ হবে। তবে প্লে-অফ এবং ফাইনাল হবে আহমেদাবাদের নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে।

 

এরই মধ্যে আইপিএলের সূচি প্রকাশ করতো বিসিসিআই।তবে লিগ পর্বের কিছু ম্যাচ জিয়ো স্টেডিয়ামে আয়োজন করতে চাওয়ায় এক্ষেত্রে দেরি হচ্ছে।এই স্টেডিয়ামে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স অনুশীলন করে। এখানে আধুনিক সব সুযোগ-সুবিধা রয়েছে।তবু সেখান থেকে টিভিতে সম্প্রচারে কোনও সমস্যা হবে কি না, তা যাচাই করছে ভারতীয় বোর্ড।

 

আগামী সপ্তাহে সম্প্রচার সংস্থার প্রতিনিধিরা জিয়ো স্টোডিয়ামে যাবেন। তারা সর্ব পর্যবেক্ষণ করবেন।তাদের কাছ থেকে সবুজ সংকেত পেলেই মেগা টুর্নামেন্টের সূচি ঘোষণা করবে বিসিসিআই।ইতোমধ্যে প্লেয়ার্স ড্রাফট হয়ে গেছে।