শেখ হাসিনার পদ্মা বিজয়

দীর্ঘ প্রতীক্ষার সফল অবসান। অনেক চ্যালেঞ্জ উপেক্ষা করে অবশেষে পদ্মা জয় করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 

 বর্ণিল উদ্বোধনে ঐতিহাসিক মুহূর্তটির সাক্ষী পুরো দেশ। স্বপ্নজয়ের আনন্দে উদ্বেলিত সারা দেশ। বহু আবেগ আর উচ্ছাস প্রমত্তা পদ্মার বুককে রাঙিয়ে দেয় হাজারো রঙে।


 

শনিবার  সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্বপ্নের পদ্মা সেতুর উদ্বোধন করলেন। এ সময় আবেগ আপ্লুত প্রধানমন্ত্রী নিজেই ধরেন শ্লোগান। এরপরই স্বপ্নের যাত্রা। প্রথম টোল দিয়ে স্বপ্নের সেই যাত্রার বাস্তব রূপ দিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মাঝপথে গাড়িবহর নেমে পদ্মার রূপ দেখেন বঙ্গবন্ধু কন্যা।

পদ্মা সেতুতে উঠার আগে উন্মোচন করেন নাম ফলকের। এ সময় সঙ্গে ছিলেন বিশ্ব ব্যাংকের ভিত্তিহীন অভিযোগ তোলা, সাবেক মন্ত্রী, উপদেষ্টা ও সচিব।

পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের আগে মাওয়া প্রান্তে সুধীসমাবেশে বক্তব্যের শুরুতেই আবেগে ভারি হয়ে উঠে প্রধানমন্ত্রীর কণ্ঠ। নানা ষড়যন্ত্র আর প্রতিকূলতার কথা তুলে ধরে বঙ্গবন্ধু কন্যা বলেন, বিশ্ব দেখলো বাংলাদেশের সক্ষমতা।

উচ্ছাস আর আবেগে প্রধানমন্ত্রী কৃতজ্ঞতা জানান, পদ্মা পারের মানুষসহ সারা দেশের মানুষের প্রতি। বলেন, যারা ষড়যন্ত্র করেছে আর যাদের আত্মবিশ্বাসের ঘাটতি ছিলো তাদের চিন্তার উন্নতি হবে বলেও আশা করেন প্রধানমন্ত্রী। আশা করেন, ষড়যন্ত্র ও বিরোধিতাকারীদের শুভবুদ্ধির উদয় হবে।

সবশেষে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের বাংলাদেশ মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে বলে প্রধানমন্ত্রীর বিশ্বাস ।