মাংসের দোকানে কাজ করতেন ‘টাইটানিকের’ নায়িকা

হলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী কেট উইন্সলেট। যিনি তার অভিনয় দক্ষতার মধ্য দিয়ে প্রমাণ করেছেন। তিনি যেকোনো চরিত্রে নিজেকে মানিয়ে নিতে পারেন। ‘টাইটানিক’ সিনেমায় রোজের চরিত্রে অভিনয় করে জয় করে নিয়েছেন অস্কার। হয়েছেন কালজয়ী সিনেমার অংশ।

 

দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমসের মতে, একজন অভিনেত্রী হিসেবে উইন্সলেটের নমনীয়তা স্পষ্ট। তিনি ‘টাইটানিক’ এবং দার্শনিক ‘রেব্যুলোশনারি রোড’- এর মতো ব্লকবাস্টার সিনেমায় অভিনয় করার পাশাপাশি। এইচবিওর ‘মিলড্রেড পিয়ার্স’ এবং ‘মেয়ার অফ ইস্টটাউন’- এর মতো ড্রামাতেও অভিনয় করেছেন। হয়েছেন বিখ্যাত।

 

তবে কেট উইন্সলেট বিখ্যাত এবং মিলিয়ন ডলার উপার্জন শুরু করার আগে বাকিদের মতো সাধারণ কাজ করতেন। বার্কশায়ার লাইভ অনুসারে, উইন্সলেট বার্কশায়ারের রিডিং শহরে বেড়ে উঠেন। অভিনেত্রী হওয়ার আগে রান্না করা মাংস এবং তৈরি করা সালাদ ইত্যাদির দোকানে কাজ করতেন।

 

তিনি সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছিলেন, তার প্রথম সিনেমা ‘হেভেনলি ক্রিয়েচার’- এ অভিনয় করার সময় অভিনয়ের ক্যারিয়ারকে সুরক্ষিত করার আশায় পার্শ্ব কাজ হিসেবে তিনি ডেলিতে কাজ চালিয়ে যান। কেননা একজন অভিনেত্রী হিসেবে জীবিকা নির্বাহ করা বেশ কঠিন। বিশেষ করে যখন কেউ সবেমাত্র কাজ শুরু করে।

 

তিনি বলেন, ‘অবশ্য যখন আমি বিখ্যাত সিনেমাগুলোতে প্রধান চরিত্রে সুযোগ পেতে শুরু তখন সময়ের সঙ্গে সবকিছু বদলে যায়।’

 

১৯৯৪ সালে শোবিজ দুনিয়ায় আত্মপ্রকাশের পর উইন্সলেটের পরবর্তী দুর্দান্ত হিট ছিল ১৯৯৫ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘সেন্স অ্যান্ড সেন্সিবিলিটি’ ছবিটি। এরপর তাকে পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। অনেক দূর এগিয়ে শক্ত করে নিয়েছেন নিজের স্থান।