ফাইনালিসিমা জিতে মেসির হুঙ্কার

ইউরো চ্যাম্পিয়ন ইতালিকে উড়িয়ে ফাইনালিসিমা জিতে নিয়েছে আর্জেন্টিনা। তিন গোলে জেতা ম্যাচটিতে কোনো গোল না করলেও দুইটি অ্যাসিস্টের পাশাপাশি চোখধাঁধানো নৈপুণ্যে ম্যাচসেরার পুরস্কার জিতে নিয়েছেন আর্জেন্টিনার অধিনায়ক মেসি।

 

ম্যাচ শেষে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় তিনি জানিয়েছেন, যেকোনো দলকে মোকাবিলা করার জন্য প্রস্তুত তার দল। ইতালির মতো দারুণ দলকে হারিয়ে ফাইনালিসিমা জেতায় আনন্দটা আরও বেশি বলে মন্তব্য করেছেন মেসি। সবমিলিয়ে দারুণ অভিজ্ঞতার কথাই জানালেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক।

 

মেসি বলেছেন, ‘আমরা এখানে এসেছি যেকোনো দলকে মোকাবিলা করতে। আজকের পরীক্ষাটি দারুণ ছিল কারণ ইতালি খুব ভালো দল। আমরা জানতাম ম্যাচটি খুব ভালো হতে চলেছে এবং শেষ চ্যাম্পিয়ন হতে পারায় খুবই আনন্দিত।’

 

লন্ডনের ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামের গ্যালারিতে আর্জেন্টাইন সমর্থকদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। পুরো ম্যাচেই ‘আর্জেন্টিনা, আর্জেন্টিনা’ কিংবা ‘মেসি, মেসি’ স্লোগানে মুখর ছিলেন তারা। সমর্থকদের এ সরব উপস্থিতি অনুপ্রাণিত করেছে মেসিদের।

 

মাঠে উপস্থিত দর্শকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে আর্জেন্টাইন অধিনায়ক বলেছেন, ‘এটি অসাধারণ এক ফাইনাল ছিল। পুরো মাঠভর্তি আর্জেন্টাইন (সমর্থক), কী অসাধারণ অভিজ্ঞতা! আমরা এখানে খুবই সুন্দর সময় কাটালাম।’

 

আর্জেন্টিনা ফাইনালিসিমা জেতানোর পেছনে বড় অবদান রেখেছেন লাউতারো মার্টিনেজ। মেসির পাস থেকে প্রথম গোল করার পর অ্যাঞ্জেলো ডি মারিয়াকে দ্বিতীয় গোল বানিয়ে দিয়েছেন এ তারকা ফরোয়ার্ড। তার মতে, এ শিরোপা অমূল্য।

 

মার্টিনেজ বলেছেন, ‘সত্যি বলতে, এটি অমূল্য। আমরা নিজেদের নিয়ে অনেক খুশি, এই ম্যাচ কিংবা এই দল নিয়ে আমরা আনন্দিত। জয়ের প্রক্রিয়া শুরুর পর থেকে এমন অভিজ্ঞতা খুবই সুন্দর। আমরা সবসময় সমর্থকদের কাছাকাছি থাকার চেষ্টা করি। এটি বাড়তি সাহস জোগায়।’