জায়েদ খানকে বয়কট সোহানের ভাইয়ের একার সিদ্ধান্ত: শাহীন সুমন

দেশের চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট ১৮টি সংগঠন এক হয়ে বয়কট করেছে চিত্রনায়ক জায়েদ খানকে। শনিবার (৫ মার্চ) একটি লিখিত বিবৃতির মাধ্যমে এই সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়। সেখানে আহ্বায়ক হিসেবে স্বাক্ষর করেছেন চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি সোহানুর রহমান সোহান।

গত ২৮ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হয়েছিল চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন। সেদিন চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট অন্য কোনো সংগঠনের সদস্যকে এফডিসিতে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি। এই ঘটনায় জায়েদ খানের প্রভাব ছিল বলে প্রমাণ পেয়েছে ১৮ সংগঠনের জোট চলচ্চিত্র পরিবার।

এ প্রসঙ্গে জায়েদ খান বলেন, ‘এটা তো আমি আগেই বলেছিলাম, কোর্টের রায় যদি হয়, আমি যদি জয়লাভ করি, তাহলে কিছু লোক এটা করবে। এ পরিকল্পনা আগে থেকেই চলছে, এটা আসলে প্রি-প্ল্যানড।

এই বয়কটের সিদ্ধান্তকে সোহানের একক সিদ্ধান্ত হিসেবে বলছেন পরিচালক সমিতির মহাসচিব শাহীন সুমন। মূলত ১৮ সংগঠনের মুখ্য ভূমিকা পালন করে থাকে পরিচালক সমিতি। যার মহাসচিব শাহীন সুমন।

পরিচালক শাহীন সুমন একটি গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আমি পরিচালক সমিতির মহাসচিব, তাই সব কিছুই আমি অবহিত থাকি।১৮ সংগঠনের সকল কার্যক্রম পরিচালক সমিতি থেকেই নিয়ন্ত্রিত হয়। শনিবার আমি চলচ্চিত্রের শুটিংয়ের জন্য কুমিল্লায় ছিলাম। সোহান ভাই আমাকে ফোন করে বললেন, মিটিং করব। আমি জিজ্ঞেস করলাম এজেন্ডা কী? তিনি আমাকে বললেন, দুইটি এজেন্ডা, একটি হলো- বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর শেষ দিন উপলক্ষে কার্যক্রম, অন্যটি হলো স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে স্মরণিকা প্রকাশ। আমি বললাম, করেন। রাতে গণমাধ্যমে দেখলাম জায়েদ খানকে বয়কট করা হয়েছে।’

শাহীন সুমন বলেন, ‘এমন কোনো এজেন্ডা ছিল না। হুট করে এই এজেন্ডা কোত্থেকে আনলেন তিনি? চলচ্চিত্রের এখন যে অবস্থা, এর মধ্যে এমন বিভাজন মোটেও কাম্য নয়। সোহান ভাই মোটেও ১৮ সংগঠনের পক্ষ থেকে করেননি। এটা তার একার সিদ্ধান্ত। আর ১৮ সংগঠন যে সক্রিয় তেমনটাও নয়। এটা ন্যাক্কারজনক