জাতিসংঘে আন্ডার সেক্রেটারি পদে নিয়োগ পেলেন রাবাব ফাতিমা

বাংলাদেশের জ্যেষ্ঠ কূটনীতিক রাবাব ফাতিমা আন্ডার সেক্রেটারি পদে জাতিসংঘে প্রতিনিধি পদে নিয়োগ পেয়েছেন। বাংলাদেশী এই কূটনীতিক আড়াই বছর জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধির দায়িত্ব পালন করছেন। 

জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেঁরেস স্বল্পোন্নত, ল্যান্ডলকড উন্নয়নশীল রাষ্ট্র এবং উন্নতির পথে থাকা ছোট্ট দ্বীপ রাষ্ট্রগুলোর প্রতি জাতিসংঘের যথাযথ ফোকাস নিশ্চিতে প্রতিষ্ঠিত ডিপার্টমেন্ট ইউএন-ওএইচআরএলএলএস এর প্রধান হিসেবে বৃহস্পতিবার মিজ ফাতিমাকে নিয়োগের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেন। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে প্রায় ৩০ বছরের বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারের অধিকারী রাবাব ফাতিমা। দ্বিপক্ষীয় এবং বহুপক্ষীয় কূটনীতি, নীতি-নির্ধারণ, অ্যাডভোকেসি, প্রোগ্রাম পরিকল্পনা এবং বাস্তবায়নে বহু অর্জন রয়েছে তাঁর।

পেশাদার এই কূটনীতিক জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধিদের মধ্যে দ্বিতীয় নারী কূটনীতিক। ফ্লেচার স্কুল অব ল এন্ড ডিপ্লোমেসি থেকে ১৯৯৩ সালে আন্তর্জাতিক সম্পর্ক ও কূটনীতিতে স্নাতকোত্তর ডিগ্রিধারী মিজ ফাতিমা ১৯৮৬ সালে বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস (বিসিএস) পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে পররাষ্ট্র ক্যাডারে সরকারি চাকরিতে যোগদান করেন। কূটনৈতিক জীবনের বেশিরভাগ সময় তিনি মানবাধিকার ও মানবিক ইস্যুতে কাজ করেছেন। ২০০৫ সালের জানুয়ারি থেকে ২০০৭ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তিনি কমনওয়েলথ সচিবালয় ও আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থায় মানবাধিকার বিভাগের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।