আইপিএলের টাকার কারণে বন্ধুত্বে ফাটল: সাইমন্ডস

By | April 25, 2022

দু’জনই অস্ট্রেলিয়ার সর্বজয়ী দলের সদস্য ছিলেন। কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে দেশকে অসংখ্য ম্যাচে জয় পাইয়ে দিয়েছেন। কথা বলছি অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস আর মাইকেল ক্লার্কের। ক্লার্কের অধিনায়কত্বেও খেলেছেন সাইমন্ডস। কিন্তু একটা সময় তাদের সম্পর্কে চিড় ধরে। যা ধীরে ধীরে অবনতির দিকে ধাবিত হয়। উভয়েই এখন সাবেক। এতোদিন তাদের বন্ধুত্বে ফাটলের বিষয়ে কথা না বললেও এবার মুখ খুললেন সাইমন্ডস। জানালেন, আইপিএল থেকে মোটা অঙ্কের টাকা পাওয়ায় সেটি ঘিরে হিংসা তৈরি হয় ক্লার্কের মনে। আর এ থেকেই শুরু বন্ধুত্বে ভাঙন।

 

২০০৮ সালে আইপিএলের প্রথম আসরে সাড়ে ১৩ লাখ ডলারে ডেকান চার্জাসের হয়ে মাঠ মাতান সাইমন্ডস। কিন্তু এই অর্থ কীভাবে ক্লার্কের সঙ্গে তার সম্পর্কে ভাঙন ধরিয়েছে সেটি পুরোপুরি খোলাসা করেননি তিনি। তবে এখনও ক্লার্কের জন্য পূর্ণ সম্মান রয়েছে বলেও জানিয়েছেন সাইমন্ডস।

 

সাবেক অজি পেসার ও সতীর্থ ব্রেট লি’র পডকাস্টে সাইমন্ডস বলেছেন, ‘আমাদের ভালো বন্ধুত্ব ছিল। সে (ক্লার্ক) যখন দলে এলো, প্রায়ই আমরা একসঙ্গে ব্যাটিং করতাম। তাই ও যখন এলো আমি সবকিছুতেই ওর খেয়াল রাখতাম। আমাদের ভালো বন্ধুত্ব তৈরি হয়েছিল।’

 

সাইমন্ডস আরও বলেন, ‘ম্যাথু হেইডেন আমাকে বলেছিল, যখন আইপিএল শুরু হলো আমি অনেক টাকা পেয়েছিলাম আইপিএল খেলতে। সে এ বিষয়টি তুলে আনে কারণ খুব সম্ভবত ক্লার্কের সঙ্গে এ বিষয়ে এক প্রকার হিংসা কাজ করছিল। যা আমাদের সম্পর্কের মাঝে চলে আসে।’

 

এ সময় সাইমন্ডস কিছুটা আক্ষেপ করেই বলেন, ‘টাকা মজার সব ঘটনা ঘটায়। এটি ভালো জিনিস। তবে কখনও কখনও বিষের মতো হতে পারে। আমি মনে করি, এটি আমাদের সম্পর্কে বিষের কাজ করেছে। তার জন্য আমার পূর্ণ সম্মান রয়েছে। তাই আমি বিস্তারিত বলতে চাচ্ছি না তখন কী কথা হয়েছিল। আমার সঙ্গে তার আর বন্ধুত্ব নেই। ঠিক আছে এটি।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *