সমুদ্রসৈকতে কালো বিকিনিতে ঝড় তুলেছেন পরিণীতি চোপড়া! হিংসে হচ্ছে প্রিয়াঙ্কার

pariniti chopra in bikini

তুরস্কের সমুদ্রসৈকতে ঝড় তুলেছেন বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী পরিণীতি চোপড়া (Parineeti Chopra)। কেন জানেন? কারণ, কালো বিকিনি পরে প্রাণায়ম করার ভঙ্গি দেখে ফ্যানেরা অন্তত এমনটাই ভাবছেন। গত বুধবার নিজের ইনস্টাগ্রামে কালো বিকিনি পরা একটি ছবি শেয়ার করেছেন পরিণীতি চোপড়া। সেই ছবি পোস্ট করার অল্প সময়ের মধ্যে লাইক ও কমেন্টের বন্যা শুরু হয়েছে। যার জেরে নিমেষে পরিণীতি চোপড়া এই বিকিনি পরা ছবিটা নেটপাড়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছে।

ছবির সঙ্গে একটি ক্যাপশনও লিখেছেন, ‘এই ছবি তোলার আগে আমি প্রাণায়ম করছিলাম।’ এর পরেই সেখানে মজা করে লিখেছেন, ‘ঠিক আছে, এটা একটা মিথ্যে’। পরিণীতির এমন প্রানবন্ত ছবিতে কমেন্ট করতে ভোলেননি তাঁর খালাতো বোন এবং বলিউড ও হলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া (Priyanka Chopra)। পরিণীতির ছবিতে প্রিয়াঙ্কা লিখেছেন, ‘আমার খুব হিংসে হচ্ছে’। সম্প্রতি ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে মুক্তি পেয়েছে পরিণীতি অভিনিত সিনেমা ‘সন্দীপ অওর পিঙ্কি ফরার’। দিবাকর বন্দ্যোপাধ্যায় পরিচালিত এই সিনেমাতে পরিণীতির বিপরীতে অভিনয় করেছেন অর্জুন কাপুর।

বুধবার ফ্যানেদের সঙ্গে প্রশ্ন উত্তর পর্বে হাজির হয়েছিলেন পরিণীতি চোপড়া। সেখানে তাঁকে তুরস্কে ছুটি কাটানো সমন্ধ্যে প্রশ্ন করা হয়। পরিণীতি এক ভক্তের প্রশ্নের উত্তরে বলেন, ‘আমি জানাতে চাই, এই কঠিন সময় বেশিরভাগ মানুষই ভারত থেকে দেশের বাইরে যেতে পারছেন না। আর আমি মার্চ মাস থেকেই দেশের বাইরে অবস্থান করছি। এমন কঠিন সময়ে দেশের বাইরে ঘুরে বেড়াতে পারার জন্য আমি সত্যিই খুব ভাগ্যবতী। ‘

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Parineeti Chopra (@parineetichopra)


করোনা মহামারির কারনে যেখানে বেশিরভাগ অভিনেতারাই কাজ পাচ্ছেন না, সেখানে পরিণীতি পর পর নতুন সিনেমা করেই চলেছে। তাঁর প্রতিটি ছবিই ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে মুক্তি পেয়েছে। সাম্প্রতিক সময়ে তার বেশ কিছু সিনেমা মুক্তি পেয়েছে ‘দ্য গার্ল অন দ্য ট্রেন’, ‘সন্দীপ অওর পিঙ্কি ফরার’ এবং সাইনা নেহওয়ালের বায়োপিক সিনেমা ‘সাইনা’। এছাড়া সিনেমা করার পাশাপাশি এই লকডাউনের সময় বাইরে ঘুরেও বেড়াতে পারছেন তিনি। এক কথায় পরিণীতি চোপড়ার সময়টা বেশ ভালোই যাচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *